মেইন ম্যেনু

দেশের জনগণের সাথে বিএনপিও চায় তিস্তার পানি : নোমান

বিএনপির ভাইস চেয়ারম্যান আব্দুল্লাহ আল নোমান বলেছেন, বিএনপি ভারত বিরোধী নয়। বিএনপি সব সময়ে বাংলাদেশের জনগণের পক্ষে কথা বলে। তিস্তার পানি এ দেশের জনগণ চায়। বিএনপিও চায় তিস্তার পানি। পানি চাওয়া কি ভারত বিরোধী।

সোমবার দুপুরে জাতীয় প্রেসক্লাবে স্বেচ্ছাসেবক দল আয়োজিত শহীদ রাষ্ট্রপতি জিয়াউর রহমানের ৩৪তম শাহাদাতবার্ষিকী আলোচনা সভায় তিনি এসব কথা বলেন।

তিনি বলেন, ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি বাংলাদেশ সফরে তিস্তা চুক্তিতে পানির ন্যায্য পাওনা না পেলে জনগণের স্বার্থে সমালোচনা করে বিরোধীতা করবো। আর ন্যায্য হিসেব পেলে অভিনন্দন জানাবো।

নোমান বলেন, ৬ জুন বাংলাদেশ সফরে নরেন্দ্র মোদি ও মমতা ব্যানার্জী আসবে। আমরা আশা করি ভারত ও বাংলাদেশের তিস্তা ও ট্রানজিটসহ সকল সমস্যার সমাধান করবে তারা।

বিএনপির এই নেতা বলেন, আওয়ামী লীগের কারণে রাজনৈতিক শূন্যতার সৃষ্টি হয়েছে। এমন পরিস্থিতি চলতে দেওয়া যায় না। আমরা বুলেটের চেয়ে শক্তিশালী ব্যালট পেপার দিয়ে এ স্বৈরাচারীর পতন ঘটাবো। এ জন্য একটি সুষ্ঠু নির্বাচন প্রয়োজন। সরকার তা না দিলে পরবর্তী সকল নৈরাজ্যর দায় সরকারের নিতে হবে।

সরকারের উদ্দেশ্য নোমান বলেন, মামলা দিয়ে টিকে থাকা যাবে না। সরকার বিএনপি নেতাকর্মীদের নামে হাজার হাজার মামলা দিয়ে কারাগারে রেখেছে।এমন পরিস্থিতিতে আমাদের আত্ম ত্যাগ করতে হবে। জেল-জুলুম উপেক্ষা করে এ সরকারের বিরুদ্ধে জেগে উঠতে হবে। গুম খুন ও মামলা দিয়ে জনগণের আন্দোলন বন্ধ করা যায় না।

তিনি আরো বলেন, আওয়ামী লীগ মুক্তিযোদ্ধার চেতনার কথা বলে। তারা মুক্তিযোদ্ধাদের জন্য কিছুই করেনি। মুক্তিযোদ্ধা মন্ত্রনালয় এবং সারাদেশে বধ্যভূমি তৈরি করেছে বিএনপি। আওয়ামী লীগ তো ৯৬ সালে ক্ষমতায় এসেছিল তারা তো করেনি। আওয়ামী লীগ অতীতে গণতন্ত্রকে হত্যা করেছিল। জিয়াউর রহমান গণতন্ত্রকে সুপ্রতিষ্ঠিত করেছিল। এখন আওয়ামী লীগ-এরশাদ মিলে গণতন্ত্র ও রাজনীতিকে হত্যা করছে।

আয়োজক সংগঠনের সিনিয়র সহ-সভাপতি মনির হোসেনের সভাপতিত্বে আরো বক্তব্য রাখেন, বিএনপির আন্তর্জাতিক বিষয়ক সম্পাদক ড. আসাদুজ্জামান রিপন, সহ সাংগঠনিক সম্পাদক এ্যাডভোকেট আব্দুস সালাম আজাদ, সহ দফতর সম্পাদক আসাদুল করিম শাহীন, সহ তথ্য ও গবেষণা বিষয়ক সম্পাদক হাবিবুর রহমান হাবিব, স্বেচ্ছাসেবক দলের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক আমিনুল ইসলাম প্রমুখ।