মেইন ম্যেনু

দেশে বস্তিবাসী ২২ লাখ

দেশের সব কটি সিটি করপোরেশন ও জেলা পর্যায়ের শহরগুলোতে মোট ২২ লাখ ৩২ হাজার ১১৪ জন বস্তিবাসী রয়েছে। আর এদের জন্য মোট বস্তিসংখ্যা ১৩ হাজার ৯৪৩টি।

বাংলাদেশ পরিসংখ্যান ব্যুরো (বিবিএস) প্রকাশিত ‘বস্তি শুমারি ও ভাসমান লোক গণনা-২০১৪’ শীর্ষক জরিপে এ তথ্য উঠে এসেছে।

সোমবার দুপুরে ব্যুরোর অডিটরিয়ামে জরিপের ফলাফল প্রকাশ অনুষ্ঠানে এ তথ্য জানানো হয়।

অনুষ্ঠানে জানানো হয়, সারা দেশে ১৩ হাজার ৯৪৩টি বস্তি রয়েছে। এর মধ্যে ঢাকা শহরে রয়েছে প্রায় ৬ হাজার এবং চট্টগ্রামে প্রায় ৩ হাজার বস্তি। বাকি বস্তিগুলো বিভিন্ন সিটি করপোরেশন এলাকায় গড়ে উঠেছে।

এসব বস্তিতে মোট ২২ লাখ ৩২ হাজার ১১৪ জন বসবাস করে। এর মধ্যে পুরুষের (ছেলেসহ) সংখ্যা ১১ লাখ ৪৩ হাজার ৯২৫ জন, মহিলার (বাচ্চা মেয়েসহ) সংখ্যা ১০ লাখ ৮৬ হাজার ৩৬৭ জন এবং তৃতীয় লিঙ্গের সংখ্যা ১ হাজার ১৫২ জন।

অনুষ্ঠানে জরিপ প্রকল্পের পরিচালক জাফর আহমেদ খান জানান, এই শুমারির মাধ্যমে কোন জেলা থেকে কতজন লোক বস্তিতে এসেছে, তাদের ভূমিহীনতা, শিক্ষা, পেশা এবং পরিবেশগত তথ্যও সংগ্রহ করা হয়েছে।

তিনি আরো জানান, দেশের বিভিন্ন বস্তির পরিবেশগত দিক, শিক্ষা ও স্বাস্থ্যগত অবস্থা এবং ভূমিসংক্রান্ত তথ্য সংগ্রহের জন্য দেশব্যাপী এ জরিপ পরিচালিত হয়েছে।

এটি দেশের তৃতীয় পূর্ণাঙ্গ বস্তি জরিপ। বিবিএস ১৯৮৫-৮৬ সালে প্রথম দেশের চারটি বড় শহর- ঢাকা, চট্টগ্রাম, খুলনা ও রাজশাহীতে বস্তি শুমারি করে। ১৯৯৭ সালে দেশের সব শহর এলাকায় পূর্ণাঙ্গ বস্তি শুমারি অনুষ্ঠিত হয়। পরে ২০০৬ সালে বস্তিবাসীদের খাদ্যনিরাপত্তার ওপর এক জরিপ অনুষ্ঠিত হয়।

সর্বশেষ, ২০১৪ সালে দেশের সব শহরাঞ্চলে তৃতীয় বস্তি শুমারি পরিচালিত হয়।

বিবিএস মহাপরিচালক মোহাম্মদ আবদুল ওয়াজেদের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসেবে পরিসংখ্যান ও তথ্য ব্যবস্থাপনা বিভাগের সচিব কানিজ ফাতেমা এনডিসিসহ ব্যুরোর কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।

অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত থাকার কথা থাকলেও পরিকল্পনামন্ত্রী আ হ ম মুস্তফা কামাল সংসদ অধিবেশনের জন্য উপস্থিত থাকতে পারেননি।



(পরের সংবাদ) »