মেইন ম্যেনু

দেশ অচিরেই সিরিয়া-ইয়েমেন পরিণত হবে : হাফিজ

দেশে গণতান্ত্রিক ব্যবস্থা ফিরে না আসলে দেশ খুব অচিরেই সিরিয়া-ইয়েমেনের মতন অবস্থায় পরিণত হবে বলে মন্তব্য করেছেন বিএনপির ভাইস চেয়ারম্যান মেজর (অ.) হাফিজ উদ্দিন আহমেদ।

জাতীয়তাবাদী স্বেচ্ছাসেবক দলসহ সকল রাজনৈতিক নেতা ও কারাবন্দি নেতাদের মুক্তির দাবিতে সোমবার দুপুরে জাতীয় প্রেসক্লাবে জাতীয়তাবাদী স্বেচ্ছাসেবক দল আয়োজিত এক সমাবেশে তিনি এ মন্তব্য করেন।

হাফিজ বলেন, ‘যে দেশে গণতান্ত্রিক ব্যবস্থা থাকে না, সে দেশে জঙ্গিদের উত্থান হয়। তাই মানুষের মৌলিক ও গণতান্ত্রিক অধিকার রক্ষার জন্য সরকার গণতান্ত্রিক ব্যবস্থা কায়েম করবে বলে আমি আশা করছি।’

বর্তমান আওয়ামী লীগের সরকার মানুষের ভোটাধিকারে বিশ্বাস করে না- এ দাবি করে তিনি বলেন, তারা গুম ও খুনের মাধ্যমে সাধারণ জনগণের ভোটাধিকার হরণ করে কিয়ামত পর্যন্ত ক্ষমতায় থাকতে চায়।

মেজর (অ.) হাফিজ বলেন, দেশে কোনও রাজনীতি নেই আছে দূর্নীতি। বিদেশীরা আমাদের গার্মেন্টস সেক্টর থেকে মুখ ফিরিয়ে নিচ্ছে। আবার দেশের ব্যাংকিং খাতের অবস্থাও খুব খারাপ। তাই গণতান্ত্রিক ব্যবস্থা না থাকলে এসবের উন্নয়ন ঘটানো যাবে না।

এ সময় তিনি সরকারের উদ্দেশ্য বলেন, ‘আগামী দিনে আপনাদের সকল অত্যাচার ও নির্যাতনের জবাব বিএনপি রাজপথে থেকে দেবে। সরকারকে বলতে চাই, এই দিন দিন নয় আরও দিন আছে?’

বিএনপির নেতাদের হত্যার ষড়যন্ত্র করা হচ্ছে দাবি করে হাফিজ বলেন, ‘নজরুল ইসলাম খানসহ অনেক বিএনপির নেতা-কর্মীকে সঠিকভাবে চিকিৎসা করতে দেওয়া হচ্ছে না। তারা যেন জেলে বসে দিনের পর দিন বিনা চিকিৎসায় মারা যায় সরকার সে ব্যবস্থাই করছে।’

তিনি বলেন, ‘দেশের আইন-শৃঙ্খলা পরিস্থিতির বাজে অবস্থা হয়ে গেছে। অস্ত্রের ঝনঝনানি বেড়ে গেছে। আজকে ছাত্রলীগ ও যুবলীগের অবৈধ অস্ত্র থেকে মায়ের পেটে থাকা শিশুও রক্ষা পাচ্ছে না।

সংগঠনের সিনিয়র সহ-সভাপতি মো. মুনির হোসেনের সভাপতিত্বে সমাবেশে আরও বক্তব্য রাখেন যুবদলের সভাপতি অ্যাডভোকেট সৈয়দ মোয়াজ্জেম হোসেন আলাল, সংগঠনের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক রফিকুল ইসলাম মাসুম, সহ-সভাপতি মারুফ আল হাসান, যুগ্ম সম্পাদক ইমতিয়াজ আহমেদ বকুল, সহ-সভাপতি সাইফুল ইসলাম পল্টু।