মেইন ম্যেনু

দেয়ালের ক্যানভাসে অন্দর সাজ

অন্দর সাজে দেয়ালের গুরুত্ব থাকে সব সময়। সৌন্দর্য পিপাসুরা দেয়াল সাজানোর জন্য বেশ চিন্তায় থাকেন। রুচির সূক্ষ্ম প্রকাশে কেউ কেউ তো রীতিমতো সাহায্য নেন অন্দর সজ্জা বিশেষজ্ঞদের। অথচ চাইলেই নিজের চেষ্টায় সাজিয়ে নেয়া যেতে পারে নিজের ঘরের দেয়ালকে।

দেয়ালের ক্যানভাসে শৈল্পিক আবেশ ছড়ানোর আছে বিভিন্ন ধরন। ঘরের পরিবেশ, দেয়ালের ভিন্নতা দেখে নিজেই বাছাই করে নিন কোন ধরনের দেয়ালে কী ধরনের সাজ দেয়া যেতে পারে। দেয়ালের সাজে প্রথমে গুরুত্ব দিতে হবে রঙ নির্বাচনের প্রতি। শোবার ঘরে সবুজ রঙ ব্যবহার করলে তা অনেক বেশি মানানসই হয়। সারাক্ষণ প্রশান্তি নিয়ে আসতে সবুজ রঙের জুড়ি নেই। বসার ঘরে হলুদ রঙ মনে ফুর্তি ধরে রাখবে। খাবার ঘরে হলুদ গ্রেডের যে কোনো রঙ ব্যবহার করতে পারেন। মনস্তত্ত্ববিদদের মতে, হলুদ গ্রেডের রঙ ক্ষুধা বাড়াতে সহায়তা করে।

ঘরের দেয়াল অনিন্দ্য সুন্দর করে সাজাতে ম্যান্টস্টোন, বিভিন্ন ধরনের বোর্ড, প্লাস্টিক উড ইত্যাদি ব্যবহার করা যায়। আজকাল ইন্টেরিয়র ট্রেন্ড হিসেবে বসার ঘরের দেয়ালে খুব বেশি টেরাকোটা ব্যবহৃত হচ্ছে। বিভিন্ন ধরনের টেরাকোটা দেয়ালে ব্যবহার করলে ঘরের সৌন্দর্য যেমন বৃদ্ধি পাবে, তেমনি রুচিশীল মনের বহিঃপ্রকাশ হবে।

ঘরের সাজে দেয়ালে নানা ধরনের ওয়ালপেপার ব্যবহার করা যাবে। তবে আবহাওয়া ও ঘরের অবকাঠামোর সঙ্গে মিল রেখে ওয়াল পেপার ব্যবহার করতে পারেন। আপনি ইচ্ছামতো কল্পনার সব রঙ দিয়ে দেয়াল পেইন্ট করাতেও পারেন। বর্তমান সময়ে আধুনিক ইন্টেরিয়রে কর্ণ মিক্স বা রাফ টেক্সারের কাজ করা হয়। এ কাজ করলে দেয়াল অমসৃণ বা খসখসে থাকবে, যা দেখতে সুন্দর লাগে। এটি ব্যয়বহুল ও ক্যাজুয়াল বলে অনেকে আবার এড়িয়ে যান। অনেকেই দেয়ালে আস্তর বা রঙ না দিয়ে সলিড ইটের দেয়াল রেখে দিচ্ছেন। চাইলে বিভিন্ন ধরনের দেয়াল ক্যাবিনেট ব্যবহার করতে পারেন।

দেয়ালের সৌন্দর্য ও শোপিস রেখে ক্যাবিনেটকে সুন্দরভাবে ফুটিয়ে তোলা যায়। দেয়ালে বিভিন্ন ধরনের পেইন্টিং ঝোলাতে পারেন। অনেকের বসার ঘরে ফ্ল্যাট এলসিডি ব্যবহৃত হয়। দেয়ালের অলঙ্কার হিসেবে দেয়ালে বিভিন্ন ধরনের চাইমার, শোপিস, কৃত্রিম ফুল, মুখোশও ব্যবহার করতে পারেন।

দেয়ালের সাজ ও রঙের সঙ্গে মিল রেখে ফার্নিচার ব্যবহার করা সবচেয়ে বুদ্ধিমানের কাজ। আবার দেয়ালের সাজের সম্পূর্ণ উল্টো রঙের ফার্নিচারও ব্যবহার করতে পারেন। দুটিই ঘরের সৌন্দর্য বৃদ্ধিতে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখবে। লাইট ব্যবহার করে দেয়ালের সাজে সৌন্দর্য আনতে পারেন। বিভিন্ন ধরনের ফোকাস লাইট, স্পট লাইট দেয়ালে ফেলে আলো-আঁধারির আবহ তৈরি করতে পারেন, যা দেখে যে কেউই অভিভূত হবে।



« (পূর্বের সংবাদ)