মেইন ম্যেনু

দ্বিতীয় শ্রেণীর ছাত্রীকে ২য় বারের মত ধর্ষণ…

বগুড়ার দুপচাঁচিয়ায় দ্বিতীয় শ্রেণির এক শিক্ষার্থীকে (১০) ধর্ষণ করেছে এক সাইকেল মেকার। ধর্ষণের ঘটনার পর ওই সাইকেল মেকার পলাতক রয়েছেন। ধর্ষিতার বাবা শুক্রবার রাতে বাদী হয়ে দুপচাঁচিয়া থানায় মামলা করেছেন।

মামলার অভিযোগে জানা যায়, উপজেলার বেলাইল গ্রামের এক চাতাল শ্রমিকের মেয়ে বেলহালি সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের দ্বিতীয় শ্রেণির ছাত্রী। গত ২৫ এপ্রিল ওই মেয়ে স্কুল থেকে বাড়ি ফেরার পথে একই এলাকার সাইকেল মেকার মনতাজ উদ্দিন মেয়েকে ফুসলাইয়া পাশের একটি সেতুর নিচে নিয়ে গিয়ে ধর্ষণ করে।

পরের দিন আবারও একই কায়দায় ধর্ষণের চেষ্টা করলে মেয়ের চিৎকারে স্থানীয়রা এগিয়ে আসে। মনতাজ পালিয়ে যায়। মেয়ে বাড়ি ফিরে এ ঘটনা খুলে বললে মেয়ের বাবা বেলাইল গ্রামে বিচার চেয়ে ব্যর্থ হন। পরে গত শুক্রবার সন্ধ্যায় দুপচাঁচিয়া থানায় মনতাজ সহ পাঁচজনকে আসামী করে মামলা করেন মেয়ের বাবা।

দুপচাঁচিয়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) নজরুল ইসলাম বলেন, মেয়ের বাবা বাদী হয়ে পাঁচজনের নামে মামলা করেছে। নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনে ধর্ষণের ঘটনায় মামলাটি নেওয়া হয়েছে। মেয়েকে ডাক্তারি পরীক্ষার জন্য বগুড়া শহীদ জিয়াউর রহমান মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। তবে এখন পর্যন্ত আসামীকে গ্রেপ্তার করা যায়নি।