মেইন ম্যেনু

দ্বিতীয় শ্রেণীর ছাত্রীকে বেল্ট দিয়ে পেটালেন শিক্ষিকা

হোমওয়ার্ক না করার অপরাধে চামড়ার বেল্ট দিয়ে সাত বছর বয়সী এক ছাত্রীকে বেধড়ক পিটিয়েছেন এক গৃহশিক্ষিকা। ভাবনা নামের ওই ছাত্রী বেঙ্গালুরুর সেন্ট জোসেফ স্কুলের দ্বিতীয় শ্রেণীতে পড়াশুনা করে।

জানা গেছে, ভাবনা সুভাষনগরের নেলামঙ্গলার বাসিন্দা ব্যবসায়ী শিবকুমারের মেয়ে। শিবকুমার তার মেয়েকে একই এলাকার বাসিন্দা গৃহশিক্ষিকা লাথার কাছে পড়তে পাঠাতেন। সেখানেই ভাবনাকে বেধড়ক মারেন ওই শিক্ষিকা।

এই ঘটনায় ওই শিক্ষিকার বিপক্ষে অভিযোগ দায়ের করা হলে অভিযুক্ত ওই শিক্ষিকাকে গ্রেফতার করে ভারতীয় দণ্ডবিধির ৩২৪ ও ৫০৪ ধারায় মামলা রুজু করেছে পুলিশ।

১৫ বছর ধরে প্রাইভেট টিউশনের সঙ্গে যুক্ত রয়েছেন ওই শিক্ষিকা। মঙ্গলবার সন্ধায় ভাবনা অভিযুক্ত ওই শিক্ষিকার বাড়িতে পড়তে যায়। এসময় হোমওয়ার্ক করতে ভুলে যাওয়ার কথা জানালে ভাবনাকে চামড়ার বেল্ট দিয়ে বেধড়ক পেটায় ওই শিক্ষিকা। পরে বাড়ি ফিরে বাবা-মাকে একথা জানালে, তারা পুলিশে অভিযোগ দায়ের করেন।

সূত্র জানায়, তদন্তে পুলিশ জানতে পেরেছে-এর আগেও অনেক ছাত্র-ছাত্রীকে পিটিয়ে গুরুতর আহত করার অভিযোগ রয়েছে ওই শিক্ষিকার বিরুদ্ধে। কিন্তু সবসময়ই বাবা-মা তাদের সন্তানদের দোষ ভেবেই ঘটনার কোনো প্রতিবাদ করেননি।