মেইন ম্যেনু

ধনী হতে চাইলে ৭ মিথ্যা ধারণা উপেক্ষা করুন

আমরা প্রতিনিয়তই কিছু প্রবাদ শুনে থাকি যে ‘টাকা কখনো গাছে ধরে না’ অথবা ‘টাকায় টাকা আনে।’

এসব সাধারণ নীতিবাক্য বিশ্বাস করায় যে, বিত্তশালী হওয়ার স্বপ্ন দেখাটা আপনার জন্য বিলাসিতা বটে।

কিন্তু আর্থিক বিশেষজ্ঞ এবং স্বচেষ্টায় মিলিওনিয়ার হওয়া ব্যক্তিদের মতামত অনুযায়ী সমৃদ্ধ হওয়ার পথে প্রচলিত কিছু অজুহাত ডাহা মিথ্যা ধারণা ছাড়া আর কিছু নয়।

আর্থিক বিশেষজ্ঞদের মতে, জীবনে সমৃদ্ধ হতে চাইলে আপনাকে ৭টি মিথ্যা ধারণা থেকে দূরে থাকতে হবে।

১. টাকায় টাকা আনে
বিগার পকেটস এর পরিচালনা বিভাগের ভাইস প্রেসিডেন্ট স্কট ট্রেঞ্চ বলেন, ‘টাকায় টাকা আনে, এটি একজন মানুষের বিত্তশালী হওয়ার ক্ষেত্রে সবচেয়ে বড় এক মিথ্যা বিশ্বাস।’

ট্রেঞ্চ এর মতে, ধনী হয়ে উঠার মূল চাবিকাঠি হলো উপার্জনের চাইতে কম খরচ করা এবং সঞ্চিত অর্থ বিভিন্ন ক্ষেত্রে বিনিয়োগ করা।

ট্রেঞ্চ বলেন, ‘সমস্যা হলো মানুষ মনে করে যে বিনিয়োগ হলো এমন একটি বিষয় যা করে সে সম্পূর্ণরূপে নিস্ক্রিয়ভাবে বসে থাকতে পারবে এবং ওই বিনিয়োগকৃত টাকাই তাকে সমৃদ্ধির পথে নিয়ে যাবে। কিন্তু বিত্তশালীরা তা করে না। তারা প্রতিনিয়ত বিনিয়োগ নিয়ে গবেষণা করতে থাকে এবং সম্ভাব্য বিনিয়োগের কোনো সুযোগ পেলেই সেখানে ঝাপিয়ে পড়ে এবং এরপর থেকে ধারাবাহিকভাবে তাদের বিনিয়োগের অগ্রগতি পরিমাপ করতে থাকে। সবচেয়ে ধনী যারা তারা একাধিক ব্যবসায় তাদের টাকা বিনিয়োগ করে এবং সে বিনিয়োগের পিছনে সক্রিয়ভাবে লেগে থাকে।’

২. টাকা গাছে ধরে না
প্রকৃতিতে, টাকা অবশ্যই গাছে ধরে না। কিন্তু রূপকভাবে বললে, আর্থিক বিশেষজ্ঞদের মতে টাকা অবশ্যই গাছে ধরে।

স্বচেষ্টায় মিলিওনিয়ার হওয়া ব্যক্তিত্ব এবং ‘হাউ রিচ পিপল থিংক’ বইয়ের লেখক স্টিভ সিবোল্ড বিশ্বাস করেন যে, টাকা সত্যিই গাছে ধরে। আর এই গাছ আক্ষরিক অর্থে কোনো গাছ নয়। এই গাছ হচ্ছে ‘আইডিয়া’।

তিনি বলেন, ‘টাকা গাছে না ধরলেও টাকা উপার্জন করার জন্য নীতি আছে। আর সে নীতিগুলো কি কি তা আবিষ্কার করার চ্যালেঞ্জ আপনার নিজেকেই নিতে হবে।’

৩. টাকাই সব অনিষ্টের মূল
‘টাকাই সব অনিষ্টের মূল’ এই উক্তিটি মূলত বাইবেল থেকে এসেছে। তবে এই নির্দিষ্ট উক্তিটি বছরের পর বছর ধরে ভুলভাবে উদ্ধৃত হয়ে আসছে।

গোজলিওলোজি এর সিইও এড ব্যানচেউ শৈশবে তার আইরিশ ক্যাথলিক নানীর কাছে বার বার এই শব্দগুচ্ছটি শুনেছেন।

তিনি বলেন, ‘অবশ্যই, যদি আপনি একজন শিশু হিসেবে এই শব্দগুচ্ছটি বার বার শুনেন তখন একটি মন্দ অনুভূতি ছাড়া টাকা জমানোটা আপনার জন্য কঠিনই হবে। কিন্তু যখন আপনি পূর্ণ উদ্ধৃতি শুনবেন তখন সম্ভবত টাকা সম্পর্কে এই মন্দ অনুভূতিটা আপনার আসবে না।’

৪. এক পয়সা বাঁচালে এক পয়সা আয় হয়
এই জনপ্রিয় উক্তিটির অর্থ দাড়ায় যে টাকা জমানোটা সমৃদ্ধ হয়ে উঠার পিছনে সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ কারণের মধ্যে অন্যতম। এই উক্তিটির সমস্যা হলো এটি ভোক্তাদের উৎসাহিত করে প্রত্যেকটি টাকা সংরক্ষণের প্রতি খুব বেশি ফোকাস থাকতে। এতে তারা কৃপন হয়ে যায়।

সিবোল্ড বলেন, ‘আমাদের এই তুচ্ছ চিন্তা প্রত্যাখ্যান করতে হবে এবং মানসিক শক্তির দিকে নজর দিতে হবে এবং বড় বড় পরিমাণের অর্থের দিকে নিজেদেরকে এগিয়ে নিয়ে যেতে হবে।’

‘অল্প পরিমাণে টাকা সংরক্ষণ করতে সমস্ত শক্তি ব্যয় করে ফেললে বড় বড় সুযোগ ফসকে যেতে পারে। এর চেয়ে কি করে বেশি উপার্জন বা বড় বিনিয়োগ করা যায় সে দিকে নজর দেয়া উচিত।’

৫. দিন যায় টাকা বাড়ে
এই উক্তিটির অর্থ আপনি যত সময় দিবেন ততই আয় বাড়বে। কিন্তু দুর্ভাগ্যবশত বিশেষজ্ঞদের মতে এটি সব সময় সত্য নয়।

বিশেষজ্ঞদের মতে কখনো কখনো ধনী হতে গেলে শুধুমাত্র দীর্ঘ সময় কাজ করে যাওয়ায় যথেষ্ট নয়। কম সময়ে সবচেয়ে বেশি টাকা উপার্জন করার জন্য আপনার জ্ঞান এবং দক্ষতার সঠিক ব্যবহারও আপনাকে করতে হবে।

৬. আপনার গাড়ি, বাড়ি অথবা ডিগ্রি হচ্ছে সম্পদ
এদেরকে আমরা সাধারণভাবে বিনিয়োগ বলে মনে করি, আমাদের ধন-সচেষ্ট লক্ষ্যে পৌঁছাতে আমাদের সাহয্য করবে বলেও আমরা মনে করি।

কিন্তু ট্রেঞ্চ এর মতানুযায়ী বিত্তশালী হতে চাইলে ঘরবাড়ি, গাড়ি এবং কলেজ-বিশ্ববিদ্যালয়ের ডিগ্রিকে স্মার্ট বিনিয়োগ হিসেবে দেখা উচিত হবে না।

যদি সত্যিই সম্পদশালী হওয়া আপনার লক্ষ্য হয় সেক্ষেত্রে গাড়ি, ডিগ্রি এবং ব্যাংক ব্যালেন্স এর চেয়ে ব্যবসা, স্টক, বন্ড এবং রিয়েল এস্টেট এর মতো সম্পদ অর্জন করার পরামর্শ দেন ট্রেঞ্চ।

৭. ধনীরা স্বার্থপর
এটি একটি সাধারণ ধারণা যে, সমৃদ্ধ হতে হলে আপনাকে স্বার্থপর হতে হবে। যদিও সম্পদ অর্জনে সময় এবং নিজের দিকে অনেক বেশি ফোকাস রাখতে হয় এটা সত্য। আর্থিক বিশেষজ্ঞরা বলছেন আপনার নিজের আর্থিক লক্ষ্য অর্জনে শুরুতে আপনি নিজের ওপর অনেক বেশি মনোযোগ দিবেন এটাই স্বাভাবিক। এতে দোষের কিছু নেই।

এই বার্তাটি মূলত ছড়ানো হয়, নিজের আগে অন্যের চাহিদা পূরণ করার জন্য। ধনী হওয়ার ক্ষেত্রে এই আত্মকেন্দ্রিক ও উচ্চমাত্রার ফিলোসফিমূলক বাজে পরামর্শটি শোনা যায়।

অনেক টাকা উপার্জন করার জন্য, সম্পদ তৈরির প্রক্রিয়ার শুরুতে একটি নির্দিষ্ট সময় রয়েছে যেখানে আপনাকে নিজের এবং আপনার ব্যবসাতে ফোকাস করতে হবে। একবার আপনি সম্পদশালী হয়ে গেলে তখন অনায়াসে আপনি স্বেচ্ছাসেবক বা দাতব্য কাজগুলো করতে পারবেন।

তথ্যসূত্র : বিজনেস ইনসাইডার