মেইন ম্যেনু

ধর্মঘটেও সদরঘাট ছাড়ছে যাত্রীবাহী লঞ্চ

সারাদেশে নৌশ্রমিক সংগ্রাম পরিষদের ডাকা অনির্দিষ্টকালের ধর্মঘট চতুর্থ দিনে গড়ালেও রাজধানীর সদরঘাট থেকে যাত্রীবাহী লঞ্চ চলাচল অব্যাহত আছে। শুক্রবার সকালেই দেশের বিভিন্ন স্থান থেকে ৩৩টি লঞ্চ সদরঘাটের বিভিন্ন জেটিতে ভিড়েছে। ছেড়ে গেছে চারটি। প্রসঙ্গত, মাসিক ন্যূনতম ১০ হাজার টাকা মজুরি, কর্মস্থলে দুর্ঘটনায় নিহত শ্রমিকদের ক্ষতিপূরণ পুননির্ধারণ, নৌপথে সন্ত্রাসী-ডাকাতি -চাঁদাবাজি বন্ধ ও নদীর নাব্যতা রক্ষায় পদক্ষেপ নেওয়ার দাবিতে মঙ্গলবার থেকে দেশের সবগুলো নদীবন্দরে ধর্মঘটের ডাক দেয় নৌযান শ্রমিকরা।

এদিকে ধর্মঘটে সৃষ্ট অচলাবস্থার প্রেক্ষাপটে শ্রমিক ও মালিকদের সঙ্গে সরকারের প্রতিনিধিরা বৈঠক করলেও কোনো সমাধান আসেনি। তবে ধর্মঘটের মধ্যেও সারাদেশের লঞ্চ যোগাযোগ একেবারেই বন্ধ হয়ে যায়নি বলে জানিয়েছে বাংলাদেশ অভ্যন্তরীণ নৌ-পরিবহন কর্তৃপক্ষ (বিআইডব্লিউটিএ)।

উল্লেখ, নৌশ্রমিকদের এই ধর্মঘট নিরসনে বৃহস্পতিবার শ্রম পরিদপ্তরের পরিচালক আশরাফুজ্জামানের নেতৃত্বে লঞ্চ মালিকদের সংগঠন বাংলাদেশ আভ্যন্তরীণ যাত্রী পরিবহন সংস্থার নেতাদের বৈঠক অনুষ্ঠিত হয়। যদিও সেখান থেকে কোনো সিদ্ধান্ত আসেনি। বৈঠক শেষে দুপুর সোয়া ১টার দিকে শ্রম পরিদপ্তরের পরিচালক সাংবাদিকদের বলেন, “আমরা গত রাতে শ্রমিকদের সঙ্গে বসেছিলাম। আজ মালিকদের সঙ্গে বসেছি। আশা করি, শিঘ্রই এর একটা সমাধান হবে।”