মেইন ম্যেনু

ধর্মের নামে কোনো অপকর্ম সহ্য করা হবে না

ধর্মের নামে কোনো অপকর্ম সহ্য করা হবে না বলে মন্তব্য করেছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। তিনি বলেন, জঙ্গিবাদ দমনে সরকারের কঠোর অবস্থান অব্যাহত থাকবে। শনিবার দুপুরে রাজধানীর ঢাকেশ্বরী পূজামণ্ডপ পরিদর্শন শেষে প্রধানমন্ত্রী এ কথা বলেন।

প্রধানমন্ত্রী জঙ্গিবাদের বিরুদ্ধে তার সরকারের কঠোর অবস্থানের কথা জানিয়ে বলেন, জঙ্গিবাদের বিরুদ্ধে কঠোর ব্যবস্থা নিয়েছি, নিয়ে যাচ্ছি, আগামীতেও নিয়ে যাবো। কারণ জঙ্গিবাদের স্থান বাংলাদেশের মাটিতে হবে না। ধর্মের নাম নিয়ে কোনো সন্ত্রাসী কর্মকাণ্ড বরদাশত করা হবে না।

তিনি উল্লেখ করেন, ইসলাম শান্তির ধর্ম, সৌহার্দের ধর্ম, ভ্রাতৃত্বের ধর্ম। ইসলামে জঙ্গিবাদের জায়গা নেই। যারা এসব করে তারা ধর্মবিরোধী।

শেখ হাসিনা বাংলাদেশের অসাম্প্রদায়িক চেতনার কথা উল্লেখ করে বলেন, ‘এখানে যার যার ধর্ম সে সে স্বাধীনভাবে পালন করবে। এই পরিবেশটা আমরা নিশ্চিত করতে চাই। ধর্ম যার যার, উৎসব সবার। সকলের তরে সকলে আমরা, আমরা মানবের তরে। আসুন সবাই মিলে একসঙ্গে দেশকে গড়ে তুলি। এভাবেই আমরা দেশকে পরিচালিত করছি।’

তিনি বলেন, ‘আমরা সংঘাত চাই না। শান্তি চাই, সম্প্রীতি চাই। ধর্ম-বর্ণ নির্বিশেষে সবার উন্নতি চাই। সে লক্ষ্য নিয়েই আমাদের পথচলা।’

বেলা ৩টার কিছু পরে জাতীয় মন্দির ঢাকেশ্বরী প্রাঙ্গণে আসেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। এ সময়, প্রধানমন্ত্রীকে শুভেচ্ছা জানান মন্দিরের আসা ভক্তবৃন্দ। এরপর মন্দিরের শারদীয় দুর্গা পূজার পুরো কার্যক্রম পরিদর্শন করেন তিনি।

পরিদর্শন শেষে উপস্থিত সনাতন ধর্মাবলম্বীদের উদ্দেশে দেয়া বক্তব্যে প্রধানমন্ত্রী বলেন, ধর্ম যার যার উৎসব সবার। এই দেশে সব ধর্মের মানুষই যাতে সম্মানের সঙ্গে বাঁচতে পারে সে লক্ষ্যেই কাজ করছে সরকার।