মেইন ম্যেনু

ধর্ষণের বিরুদ্ধে প্রচার চালাতে গিয়ে নিজেই ধর্ষিত!

ছবিটি ছিল ফাঁকা স্নান ঘরে বসে থাকা এক নারীর। বিধ্বস্ত। কান্নায় দুমড়ে যাচ্ছে তাঁর মুখ। সেই ছবির পাশেই ছিল ধর্ষণ-সংক্রান্ত একটি গ্রাফিক্স এবং একটি ধর্ষণের ধারাবিবরণী। তার পরে তিনি পোস্ট করেন আরও দু’টি ছবি। সেখানে দেখা যাচ্ছে, হাসপাতালে তাঁর পায়ের কাছে ‘রেপ কিট’। সূত্র: অনলাইন।

সম্প্রতি সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ইনস্টাগ্রামে ‘ধর্ষণ’ এর একটি লাইভ-ব্লগ পোস্ট করলেন অ্যাম্বার আমোর নামের এক মার্কিন সমাজকর্মী। বলাই বাহুল্য এই ধর্ষণের শিকার তিনি নিজেই। ধর্ষিতা হওয়ার অভিজ্ঞতা, ঘৃণা ও যন্ত্রণা ইত্যাদিকে তিনি নারী পৃথিবীর সঙ্গে শেয়ার করতে চান বলেই এই লাইভ-ব্লগ।

এখানেই পরিহাস, অ্যাম্বার নিজেই একজন নারীবাদ-প্রচারক। সম্প্রতি দক্ষিণ আফ্রিকায় তিনি ‘স্টপ রেপ এডুকেট’ শিরোনামের এক প্রচার অভিযানে গিয়েছিলেন। সেখানেই এক স্নানাগারে এই ধর্ষণের ঘটনাটি ঘটে। তাঁর নিজের ভাষায় ‘লজ্জা, ঘৃণা এবং যন্ত্রণা’-র অনুভূতিকে তিনি ব্যক্ত করতে চেয়েছেন লাইভ ব্লগটিতে।

তিনি আরও জানান, স্নানাগার থেকে বেরিযে তিনি পুলিশের কাছে গিয়েছিলেন। কিন্তু দক্ষিণ আফ্রিকার পুলিশ বিস্ফোরিত নয়নে তাকিয়ে থাকার বেশি কিছু করতে পারেনি। তাঁর ব্লগটি শেষ হয়েছে এই বলে যে— ‘‘এই ব্লগ কোন মতেই ধর্ষণের আমন্ত্রণপত্র নয়।’’