মেইন ম্যেনু

ধুতি পরা চিত্রপরিচালককে শপিংমলে ঢুকতে ‘বাধা’

ভারতের পশ্চিমবঙ্গ রাজ্যের কলকাতায় ধুতি পরায় একটি শপিংমলে ঢুকতে বাধা দেওয়া হয়েছে বলে অভিযোগ করেছেন একজন চলচ্চিত্র পরিচালক।

স্থানীয় সময় শনিবার এ ঘটনা ঘটে।

কলকাতার ওই চিত্রপরিচালকের নাম আশীষ অভিকুন্তক। সামাজিক যোগাযোগের মাধ্যম ফেসবুকে এক পোস্টে শপিংমলে ঘটে যাওয়া ঘটনার বিস্তারিত বর্ণনা দেন তিনি। এর পর এ নিয়ে তোলপাড় শুরু হয় সামাজিক যোগাযোগের বিভিন্ন মাধ্যমে।

ফেসবুক পোস্টে আশীষ বলেন, ‘কলকাতার নব্য-উপনিবেশবাদী ক্লাবগুলোতে প্রবেশে বাধা নতুন কিছু নয়। আজ আমাকে ঢুকতে বাধা হয়েছে…মলে। কারণ, আমি ধুতি পরেছিলাম (গত ২৬ বছর ধরে যে পোশাক আমি পরছি)। এ বিষয়ে প্রতিবাদ ও পাল্টা প্রশ্ন করলে আমাকে বলা হয়, নিরাপত্তাজনিত কারণে লুঙ্গি ও ধুতি পরা লোকজনকে প্রবেশের ক্ষেত্রে আমাদের আদেশ দেওয়া আছে। এর পর ইংরেজিতে কথা বলতে পারা ও নিজের অধিকারের বিষয়ে অনড় থাকায় আমাকে ঢুকতে দেওয়া হয়।’

‘এই শহরের জন্য এটা এক ধরনের আইনে পরিণত হয়েছে। বেসরকারি ক্লাবগুলো সব সময়ই অভিজাততন্ত্র বজায় রেখেছে ও পোশাক দিয়ে বিভাজন তৈরি করেছে। এখন পাবলিক প্লেসগুলোতেও প্রবেশাধিকার কেড়ে নেওয়া হচ্ছে এবং শ্রেণিভিত্তিক বিচ্ছিন্নতার এই সংস্কৃতি প্রকাশ্যে চর্চা হচ্ছে।’

চিত্রপরিচালকের এসব অভিযোগ অস্বীকার করেছে শপিংমল কর্তৃপক্ষ। তাদের দাবি, শপিংমলের ফটকে নিরাপত্তারক্ষীরা চিত্রপরিচালককে দাঁড় করিয়ে তত্ত্বাবধায়কের মতামত নিতে গিয়েছিলেন। এর পর চিত্রপরিচালক আশীষকে প্রবেশ করতে দেওয়া হয়।






মন্তব্য চালু নেই