মেইন ম্যেনু

নওগাঁর বদলগাছীতে গলা কেটে স্কুলছাত্র হত্যার রহস্য উন্মোচন : আসামী গ্রেফতার

কাজী আনিছুর রহমান, রাণীনগর (নওগাঁ) : নওগাঁর বদলগাছীতে আহসান হাবিব বিদ্যুৎ (১৬) নামে স্কুলছাত্রকে গলা কেটে হত্যার ঘটনার ২৪ ঘন্টা পার হবার পূর্বেই রহস্য উন্মোচনসহ মুল আসামীদের গ্রেফতার করতে সক্ষম হয়েছে পুলিশ।

এ ঘটনার সাথে জড়িত গ্রেফতারকৃত আসামীরা হলেন, বিদ্যুৎ হোসেনের প্রতিবেশী নানা মো: আলম হোসেন (৪৮), তার সহযোগী একই গ্রামের আমজাদ হোসেন,বুলু ও তসলিম। শনিবার দুপুরে নওগাঁ পুলিশ সুপার মোজাম্মেল হক নিজ কার্যালয়ে এক প্রেস ব্রিফিংয়ে এ তথ্য জানান।

প্রেস ব্রিফিংয়ে পুলিশ সুপার জানান, গলা কেটে হত্যার শিকার বদলগাছীর কয়াভবনি গ্রামের আনোয়ার হোসেনের ছেলে আহসান হাবিব বিদ্যুৎ ৩/৪ বছর ধরে তার নানার বাড়ি চকাবিল গ্রামে থেকে বালুভরা আর.বি উচ্চ বিদ্যালয়ের ১০ম শ্রেণীতে পড়াশুনা করে আসছে। সেসময় নানার প্রতিবেশী ভাই আলমের একমাত্র মেয়ে ফাতেমা (নবম শ্রেণীর ছাত্রী) সঙ্গে তার প্রেমের সম্পর্ক গড়ে ওঠে।

পুলিশ জানায়, গত বৃহস্পতিবার ঘটনার দিন সন্ধ্যার পর ফাতেমার নানা মারা গেলে তার মা নানার বাড়িতে যায় এবং তার বাবা বাড়ির বাইরে ছিল। বাড়িতে কেউ না থাকার সুযোগে সন্ধ্যা ৮ টার সময় ফাতেমা ফোন দিয়ে বিদ্যুতের সঙ্গে কথা বলে এবং সাড়ে ৮টায় ফোন করে বিদ্যুতকে বাসায় ডেকে নেয়। রাত ৯টার দিকে ফাতেমার বাবা বাড়িতে আসলে এসময় ফাতেমা বিদ্যুৎকে তাড়াহুড়া করে ঘরের মধ্যে লুকিয়ে পড়তে গেলে শব্দ হয় ও ফাতেমার বাবা বিষয়টি বুঝতে পারে।

এসময় ফাতেমা যেন একা বাড়িতে না থাকে এজন্য তাকে পাশের বাড়িতে থাকতে পাঠিয়ে দিয়ে ঘরের তালা আটকে দেন তার বাবা। তখন বিদ্যুৎ হোসেন ঘরে আটকে পড়ে। এর কিছু সময় পর মেয়ের বাবা আলম হোসেন আমজাদ হোসেন, বুলু ও তসলিমকে নিয়ে ঘরে ঢুকেন। । তাদের সহায়তায় আহসান হাবিব বিদ্যুকে ঘর থেকে বাইরে ফাঁকা মাঠের মধ্যে নিয়ে গিয়ে হত্য করে বলে জানায় পুলিশ।