মেইন ম্যেনু

নওগাঁর সাপাহারে সয়লাব ভারতীয় সিরিয়ালের ছবিযুক্ত খাতা

নওগাঁর সাপাহার উপজেলায় ভারতীয় বিভিন্ন টিভি সিরিয়ালের অভিনেতা অভিনেত্রীর অশ্লীল ছবি যুক্ত খাতার ছড়াছড়ি লাইব্রেরি ও দোকান গুলোতে। এতে করে কমলমতী শিক্ষার্থীদের নৈতিক চরিত্রের ব্যাঘাত ঘটবে বলে সচেতন অভিভারকরা মনে করছে। কয়েক বছর ধরে ঈদ ও পূজোর বাজারে দেখা গেছে ভারতীয় সিরিয়ালের অভিনেতা অভিনেত্রীর নামে হরেক রকমের পোশাক।তবে তা সেখানেই সীমাবদ্ধ নয় এখন শিক্ষা উপকরণেও ছড়িয়ে পড়েছে।

সমাজে যখন পরিবার ধ্বংসকরী চ্যালেন স্টার জলসা, জি বাংলা বন্ধের দাবি ওঠেছে তখনি বাজারে ভারতীয় সিরিয়ালের নায়ক নায়িকাদের নামে পোশাক ও শিক্ষা উপকরণে ছেয়ে গেছে । খাতার মলাটে এসব দৃশ্য থাকায় ছোট ছেলে মেয়েদেরকে বিপদ গামীর পাশাপাশি পড়ালেখার প্রতি অমনুযোগী করে শিক্ষার পরিবেশকে নষ্ট করছেন ।যে খাতার মলাটে থাকার কথা ,শিক্ষা জাতির মেরুদন্ড,আপনার শিশুকে স্কুলে পাঠান ,আজকের শিশু আগামী দিনের ভবিষৎ, সেখানে শোভা পাচ্ছে শিশুর মনে বিরুপ প্রভাব ফেলা ভারতীয় স্টার জলসা সিরিয়ালের নায়ক নায়িকাদের অশ্লীল ছবির দৃশ্য কিরণমালা,পাখি,জলনূপুর,ঝিলিক,লাভ স্টোরি।

সমাজের সচেতন মানুষ মনে করছে এসব চ্যালেন বন্ধ করে দেওয়ায় ভালো কেননা, এসব ভারতীয় চ্যালেন পরিবার সমাজ সংসারে বিরুপ প্রভাব ফেলতেছে। গত বছর পাখি,ঝিলিক জামা নেওয়ার জন্য কত গুলো মেয়ের প্রাণ হারাতে হলো ।প্রচারিত সিরিয়ালে দর্শকদের শেখাচ্ছে,পারিবারিক কলহ,বউ শাশুড়ি ঝগড়া,শিশুদের মিথ্যা কথা বলা,পরকিয়া, হিংসা, অনৈতিকতা।

শিশুর সুন্দর আগামীর কথা চিন্তা করে কমলমতী শিশুদের শিক্ষা উপকরণে ঐই সব ছবি দেওয়া বন্ধ করতে হবে।অন্য দেশের অশ্লীল সংস্কৃতি দিয়ে যারা ব্যবসা করছেন তারা অশ্লীলতা বন্ধ করে, দেশের ইতিহাস ও ঐতিহ্যকে সবার মাঝে তুলে ধরতে দেশি সংস্কৃতিকে তুলে ধরুন।
সচেতন অভিভাবক ও শিক্ষক মন্ডলী এসব বিরুপ প্রভাব সৃষ্টিকারী চ্যালেন বন্ধ ও কমলমতী শিশুদের শিক্ষা উপকরণে ভারতীয় সিরিয়ালের অশ্লীল দৃশ্য বন্ধে প্রশাসনের হস্তক্ষেপ কামনা করছে।