মেইন ম্যেনু

এমপিওভুক্ত শিক্ষকদের

নতুন স্কেলের বেতন নিয়ে দোটানায় শিক্ষা মন্ত্রণালয়

বেসরকারি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের প্রায় ৫ লাখ শিক্ষক-কর্মচারী নতুন জাতীয় স্কেলে বেতন কবে হাতে পাবেন, তা এখনো নির্ধারণ করতে পারেনি শিক্ষা মন্ত্রণালয়।

বিষয়টি অর্থ মন্ত্রণালয়ের ওপর নির্ভর করছে বলে শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের পক্ষে শিক্ষক-কর্মচারীদের কিছু জানানো সম্ভব হচ্ছে না।

এ নিয়ে সারা দেশের প্রায় ৫ লাখ শিক্ষক-কর্মচারি দুশ্চিন্তায় আছেন। এঁদের অনেকে আমাদের কাছে ফোন করে নতুন স্কেলে বেতন হাতে না পাওয়ায় ক্ষোভের কথা জানিয়েছেন। তবে মার্চ মাসের বেতনের সাথে নতুন স্কেল দেওয়ার চেষ্টা করছে শিক্ষা মন্ত্রণালয় ।

এ বিষয়ে শিক্ষাসচিব সোহরাব হোসাইন সাংবাদিকদের বলেন, তাঁরা আশা করছেন শিগগিরই এ বিষয়টি সুরাহা হবে এবং এমপিওভুক্ত শিক্ষক-কর্মচারীরা নতুন স্কেলে বেতন পাবেন।

শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের কর্মকর্তারা মঙ্গলবার জনান, এটি শুধু শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের সিদ্ধান্তের বিষয় নয়, এ বিষয়ে অর্থ মন্ত্রণালয়ের অনুমোদন সবচেয়ে বেশি প্রয়োজন। কারণ এখানে বড় আকারের অর্থের সংশ্লেষ আছে। তবে বিষয়টি এখন চূড়ান্ত পর্যায়ে আছে। শিক্ষক-কর্মচারীরা যাতে মার্চ মাসের বেতন নতুন স্কেলে পেতে পারেন, এ জন্য চেষ্টা চলছে।

কর্মকর্তারা আরো জানান, এমপিওভুক্ত শিক্ষক-কর্মচারীদের দুশ্চিন্তার কিছু নেই। তাঁরা গত ১ জুলাই থেকেই নতুন স্কেলে বেতন পাবেন। যখনই কার্যকর হোক না কেন, আগের মাসগুলোর বেতন বকেয়া হিসেবে পাবেন।

সারা দেশে এমপিওভুক্ত শিক্ষক-কর্মচারীরা মূল বেতনের শত ভাগ সরকার থেকে পেয়ে থাকেন। এসব শিক্ষক-কর্মচারীর বেতন-ভাতা বাবদ প্রতি মাসে রাষ্ট্রের ব্যয় হয় ৬০০ কোটির কিছু বেশি টাকা। নতুন স্কেলে বেতন দেয়া হলে প্রতি মাসে আরও প্রায় ৪০০ কোটি টাকা লাগবে জানিয়েছে শিক্ষা মন্ত্রণালয়। দৈনিকশিক্ষা



« (পূর্বের সংবাদ)