মেইন ম্যেনু

নবীনদের বরণ করে নিল বেরোবি

রংপুরের বেগম রোকেয়া বিশ্ববিদ্যালয়ের (বেরোবি)২০১৪-১৫ শিক্ষাবর্ষের নবীণ শিক্ষার্থীদের আনুষ্ঠানিকভাবে বরণ করে নিল বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন। রোববার সকাল ১০টায় জাতীয় পতাকা উত্তোলনের মধ্য দিয়ে বিশ্ববিদ্যালয়ের স্বাধীনতা স্মারকের পাদদেশে এই অনুষ্ঠান আরম্ভ হয়।।
বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক ড. এ কে এম নূর-উন-নবী সভাপতিত্বে আলোচক হিসেবে উপস্থিত ছিলেন দেশবরেণ্য কথা সাহিত্যিক অধ্যাপক সৈয়দ মনজুরুল ইসলাম, বিশিষ্ট অর্থনীতিবিদ খোন্দকার ইব্রাহীম খালেদ ও কবি রুবী রহমান।

বাংলা বিভাগের সহযোগী আধ্যাপক ড. তুহিন ওয়াদুদের সঞ্চালনায় স্বাগত বক্তব্য পেশ করেন নবীনবরণ উদযাপন কমিটির আহ্বায়ক ড. আর এম হাফিজুর রহমান, বিশ্ববিদ্যালয়ের রেজিস্ট্রার(অতিরিক্ত দায়িত্ব) মোর্শেদ উল আলম রনি, কলা অনুষদের ডিন অধ্যাপক ড. নাজমুল হক, বিজনেজ স্টাডিজ অনুষদের ডিন অধ্যাপক ড. মো. মতিউর রহমান এবং জীব ও ভূ-বিজ্ঞান অনুষদের ডিন অধ্যাপক ড. তাজুল ইসলাম। বক্তব্য শেষে অতিথিরা নবাগত শিক্ষার্থীদের ফুল দিয়ে বরণ করে নেন। এ সময় বিশ্ববিদ্যালয়ের বিভিন্ন শিক্ষার্থীরা উপস্থিত থেকে নবাগতদের বরণ করে নেয়।

নবাগত শিক্ষার্থীদের পর্বে বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রথম ব্যাচের ইংরেজি বিভাগের শিক্ষার্থী সাদিয়া কবির নবীন শিক্ষার্থীদের উদ্দেশ্যে বলেন, বেগম রোকেয়া বিশ্ববিদ্যালয় বাংলাদেশে উচ্চশিক্ষা ও গবেষণার অন্যতম শীর্ষ বিদ্যাপীঠ। জ্ঞানের নতুন ক্ষেত্র আবিষ্কার করে আগামীতে লেখাপড়া ও গবেষণার মাধ্যমে তাদের মেধার স্বাক্ষর অম্লান রাখবে।’

নবাগত উইমেন এন্ড জেন্ডার স্টাডিজ বিভাগের শিক্ষার্থী মুন্নাফ বলেন,‘শিক্ষার্থী হিসেবে সুমহান কর্তব্য সম্পদান করে বিশ্ববিদ্যালয়কে বিশ্বদরবারে মেলে ধরার চেষ্টা করব।’

নবাগতদের বিশ্ববিদ্যালয় পরিবারের পক্ষ থেকে স্বাগত জানিয়ে দেশবরেণ্য কথা সাহিত্যিক অধ্যাপক সৈয়দ মনজুরুল ইসলাম বলেন, ‘বিশ্ববিদ্যালয় জ্ঞানচর্চার পাশাপাশি শুভ বোধ বুদ্ধি বিকাশের পবিত্র অঙ্গন। বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীদের উচিত মুখস্ত না করে যে কোন বিষয়কে ব্যাখ্যা বিশ্লেষণ করা। আমাদের তরুণেরা অত্যন্ত সম্ভবনাময় এবং আমাদের দায়িত্ব হচ্ছে তাদের উপযুক্ত করে গড়ে তোলা।’

সভাপতির বক্তব্যে উপাচার্য অধ্যাপক ড. এ কে এম নূর-উন-নবী বলেন, কিছুটা বিলম্বে ভর্তি করা নবীন শিক্ষার্থীদের সেশনজট কমাতে গ্রীষ্মকালীন ছুটি বাতিলসহ প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেওয়া হয়েছে। নবীনদের নিয়ে নতুন যাত্রা শুরু হল আজ থেকে।

এরপর বিকেল পাঁচটা থেকে রাত সোয়া আটটা পর্যন্ত মনোজ্ঞ সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান চলে।এতে সংগীত পরিবেশন ও কবিতা পাঠ করেন বিভিন্ন জায়গা থেকে আসা সংগীতশিল্পী এবং কবি।
এ দিকে সোমবার বিশ্ববিদ্যালয়ের নবাগত ৭ম ব্যাচের ক্লাস শুরু করার জন্য স্ব স্ব বিভাগগুলোতে বলা হয়েছে বলে জানান বিশ্ববিদ্যালয়ের ইনফরমেশন অফিসার মোহাম্মদ আলী।তবে তিনি বলেন,এখন থেকে যে কোনো দিন ক্লাস শুরু করার সিদ্ধান্ত নিজ নিজ বিভাগগুলোর।তবে আগামীকাল ৯টা থেকে মার্কেটিং,একাউন্টিং সহ অধিকাংশ বিভাগের ক্লাস শুরু হওয়ার কথা রয়েছে।এর মধ্যে ম্যানেজমন্টে স্টাডিজ বিভাগের ক্লাস শুরু হবে আগামী মঙ্গলবার এবং গণযোগাযোগ ও সাংবাদিকতা বিভাগের আগামী ১৮ তারিখ থেকে।

উল্লেখ্য যে.গত ৫ও ৬ মে বিশ্ববিদ্যালয়ের ২০১৪-১৫ শিক্ষাবর্ষের ভর্তি পরীক্ষা সম্পন্ন হয়।ফলাফল ঘোষণা করা হয় ১৩ মে।এ ভর্তি পরীক্ষায় ১হাজার ১৯৫ টি আসনের বিপরীতে আবেদন করে ৯০হাজার ৪০২ জন শিক্ষার্থী।