মেইন ম্যেনু

নবীন শিক্ষার্থীদের পদচারণায় মুখরিত জাবি ক্যাম্পাস

শাহিনুর রহমান শাহিন: নতুন বর্ষের শিক্ষার্থীদের পদচারণায় মুখরিত হয়ে উঠেছে জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয় ক্যাম্পাস। বৃস্পতিবার বিশ্ববিদ্যালয়ের ৪৬ তম আবর্তনের ২০১৬-২০১৭ স্নাতক (সম্মান) শিক্ষাবর্ষের আর্বতনের ক্লাশ শুরু হয়েছে। প্রাকৃতিক সৌন্দর্যের অপরুপ লীলাভূমি সবুজ গাছের প্রায় ৭০০ একরের বিশাল ক্যাম্পাস নবীনদের পদচারণায় মুগ্ধ হয়ে উঠেছে।

ক্যাম্পাসে প্রতিদিন হাজারো দর্শণার্থী আসে ক্যাম্পাসের অপার সৌন্দর্য উপভোগ করে সময় কাটানোর জন্য। নবীনদের পদচারণায় আরো মুখরিত হয়েছে পুরো ক্যাম্পাস। ক্যাম্পাসের শহীদ মিনার, মহুয়াতলা, টারজান পয়েন্ট, বটতলা, সুইজারল্যান্ড, ট্রাস্টপোর্ট, মুন্নি চত্বর, সপ্তম ছায়ামঞ্চসহ সর্বত্র নবীনদের বিচারণ। প্রতিদিন বিকেলে বিশ্ববিদ্যালয়ের বিভিন্ন স্থানে তাদের হাসিখুশি উল্লসিত মুখের উপস্থিতি নজর কাড়ার মতো।

বিশ^বিদ্যালয়ের জার্নালিজম এন্ড মিডিয়া স্টাডিজ বিভাগে নবীন বরণ অনুষ্ঠানে নবীন শিক্ষার্থী উর্মি বিশ্ববিদ্যালয় জীবনের নতুন অভিজ্ঞতার কথা ব্যক্ত করতে গিয়ে বলেন, স্বপ্ন ছিল পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয়ে পড়ব, সে স্বপ্ন আজ সার্থক হল। জার্নালিজম বিভাগ আমার খুবেই পছন্দের বিভাগ। আশা করছি অনেক কিছুই পাবো এই বিভাগ ও ক্যাম্পাস থেকে। ক্যাম্পাসের পরিবেশ খুবই মনোরম যা আমাকে মুগ্ধ করেছে।

বিশ্ববিদ্যালয়ের আ.ফ.ম কামালউদ্দিন হলের নতুন আবাসিক শিক্ষার্থী কুদরত ইসলাম বলেন, পরিবার ছেড়ে এই প্রথম নতুন জায়গায় এসেছি। নতুন বন্ধুবান্ধব পেয়ে এখন ভালো লাগছে।

আইন ও বিচার বিভাগের অনার্স দ্বিতীয় বর্ষের (৪৪ তম ব্যাচ) আবুল হাসনাত নতুন শিক্ষার্থীদের শুভ কামনা জানিয়েছেন। তিনি বলেন নতুনদের জন্য সেশনজট, মাদকমুক্ত একটি ক্যাম্পাস উপহার দিতে পারলে তাদের ক্যাম্পাস জীবন আনন্দময় হবে।

এদিকে প্রথম বর্ষের নবীন শিক্ষার্থীদেরকে আগামী ১৯ মার্চ বিশ^বিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ আনুষ্ঠানিকভাবে বরণ করে নিবেন। অন্যদিকে নবীন শিক্ষার্থীদের বরণ করে নিতে বিশ্ববিদ্যালয়ের রাজনৈতিক, সামাজিক ও সাংস্কৃতিক সংগঠনগুলো ব্যস্ত সময় পার করছে। সংগঠনগুলো নবীন শিক্ষার্থীদের স্বাগত জানাতে তাদের কাছে যাচ্ছেন। বিশ্ববিদ্যালয়ের জেলা সমিতিগুলো নবীন শিক্ষার্থীদের সাথে পরিচিত ও বরণ করে নিতে নানা কর্মসূচির আয়োজন করছে। এভাবেই সিনিয়র জুনিয়রদের মধ্যে মধুর সম্পর্কগুলো তৈরী হয় জাহাঙ্গীরনগরে। ধীরে ধীরে ক্যাম্পাসকে একটা পরিবার ও সবাই হয়ে উঠে সেই পরিবারের সন্তান। আর পরিবারে নতুন অতিথিদের আগমনে একটু উৎসব তো থাকবেই। সেই সাথে থাকবে হাসি-কান্না, মায়ামমতা ভালবাসার অটুট বেড়াজাল।