মেইন ম্যেনু

নভেম্বর থেকে শিক্ষকদের লাগাতার কর্মসূচির হুমকি

স্বতন্ত্র বেতন কাঠামো ও মর্যাদা বৃদ্ধির দাবি পূরণ না হলে পয়লা নভেম্বর থেকে লাগাতার কর্মসূচিতে যাওয়ার ঘোষণা দিলেন আন্দোলনরত পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষকরা।

মঙ্গলবার সকালে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় ক্যাম্পাসে বৈঠক শেষে বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষক ফেডারেশনের মহাসচিব এএসএম মাকসুদ কামাল।

একইসঙ্গে শিক্ষকদের মর‌্যাদার বৃদ্ধির বিষয়টি সুচিন্তিতভাবে বিবেচনা করতে প্রধানমন্ত্রীর প্রতি আহ্বান জানিয়েছেন শিক্ষকরা।

রবিবার যুক্তরাষ্ট্র সফর নিয়ে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে প্রধানমন্ত্রী শিক্ষকদের আন্দোলনের যৌক্তিকতা নিয়ে প্রশ্ন তুলেন।তাদের আন্দোলন নিরসনে প্রধানমন্ত্রী হস্তক্ষেপ করবেন না বলেও জানান।

পৃথক বেতন কাঠামো ও অষ্টম বেতন স্কেলে গ্রেড সমস্যা নিরসনের দাবি নিয়ে চলমান আন্দোলনের গতি-প্রকৃতি ও করণীয় নিয়ে এ বৈঠক অনুষ্ঠিত হয়।প্রায় চার মাস ধরে পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষকরা আন্দোলন করছে।

পূর্বঘোষিত সময়সূচি অনুযায়ী আজ বিকাল তিনটায় শিক্ষামন্ত্রণালয়ে শিক্ষামন্ত্রীর সঙ্গে তাদের বৈঠকের কথা রয়েছে।এরআগে নিজেদের মধ্যে পরামর্শ করতে এই বৈঠক অনুষ্ঠিত হয়েছে বলে জানা গেছে।

শিক্ষকরা পৃথক বেতন কাঠামোসহ কয়েকটি দাবিতে প্রায় চার মাস ধরে আন্দোলন করছেন। এর মধ্যেই ৭ সেপ্টেম্বর সিলেকশন গ্রেড ও টাইমস্কেল বাদ দিয়ে অষ্টম বেতন স্কেল অনুমোদন করে মন্ত্রিসভা। এরপর শিক্ষকদের আন্দোলন আরও জোরদার হয়। তখন থেকে শিক্ষকরা কর্মবিরতিসহ আরও বিভিন্ন কর্মসূচি পালন করে আসছেন। তারা বলেছেন, দাবি পূরণ না হলে ৯ অক্টোবর থেকে অনুষ্ঠেয় বিশ্ববিদ্যালয়ের ভর্তি পরীক্ষা বাধাগ্রস্ত হতে পারে।

উল্লেখ্য,কয়েক দিন আগে ফেডারেশনের ৪ জন নেতা শিক্ষামন্ত্রীর সঙ্গে তার বাসায় অনানুষ্ঠানিকভাবে বৈঠক করেছিলেন। তবে সেখানে কোনো সিদ্ধান্ত হয়নি।