মেইন ম্যেনু

নাইট ক্লাবে নারী ছিনতাইবাজের কবলে সালমান

সালমানের নারী ভক্তের সংখ্যা কম নয়। কিন্তু তাই বলে মহিলা ছিনতাইবাজের হাতে লুট হবেন তিনি। তবে এর কোনও প্রমাণ পাওয়া যায়নি। সালমান খান নিজেও লিখিত অভিযোগ দায়ের করেননি থানায়। কিন্তু, নায়কের ঘনিষ্ঠ মহল বলছে, বান্দ্রার এক নাইট-ক্লাবে চার জন মহিলা ছিনতাইবাজের হাতে লুঠ হয়েছেন সালমান। তাও সেটা জানাজানি হল ঘটনার এক সপ্তাহ পরে।

ঘনিষ্ঠ মহল বলছে, সেইদিন বান্দ্রার এক নাইট ক্লাবে হাজির ছিলেন সালমান। সময় কাটাচ্ছিলেন বন্ধুদের সঙ্গে। আর কাছাকাছি এক টেবিলে রেখেছিলেন নিজের ওয়ালেট, সানগ্লাস আর পেনডেন্ট। হঠাৎ চার মহিলা এসে হাজির হয় নায়কের সামনে। তার ফ্যান হিসেবে আত্মপরিচয় দেয় তারা। মিনিটখানেক কথা বলে তারা চলে যাওয়ার পরেই সালমান দেখেন সেই টেবিলে তার জিনিসগুলো আর নেই।

ব্যাপারটা চোখে পড়তেই সজাগ হন তিনি। সবাইকে জানান জিনিসগুলো নিখোঁজ হওয়ার খবর। কিন্তু, অনেক খোঁজাখুঁজি করেও সেগুলো পাওয়া যায়নি। নিরাপত্তারক্ষীরা তাকে থানায় যেতে বললেও সালমান তাদের চুপ করিয়ে দেন। চুপচাপ ফিরে আসেন বাড়িতে মন খারাপ নিয়ে।
কথাটা সত্যি হলে ব্যাপারটা যে নায়কের খারাপ লাগবেই, তাতে আর সন্দেহ কী।