মেইন ম্যেনু

নাক দিয়ে রক্তক্ষরণ? জেনে নিন কিছু করণীয়

হঠাৎ করে নাক দিয়ে রক্ত আসাটা মোটেও ভালো চোখে দেখা যায় না। কারণ ছাড়াই তাজা রক্ত আসতে দেখে মাথা চক্কর দিয়ে ওঠাটা স্বাভাবিক। তবে এ সমস্যা সাধারণত শিশু ও বৃদ্ধদের বেলায় বেশি দেখা যায়। দৃশ্যত কোনো কারণ না থাকলেও নাক দিয়ে রক্ত পড়ার পেছনে লুকিয়ে থাকে বেশ কিছু কারণ। আজ জেনে নেব নাক দিয়ে রক্ত পড়ার কারণ ও প্রতিকার সম্বন্ধে।

রক্তপাতের কারণ

আমাদের নাকের ভেতরের রক্তনালি খুব স্পর্শকাতর। সামান্য আঘাত বা ঘষা লাগলেও তা ছিঁড়ে যেতে পারে এবং রক্তপাত হতে পারে। নাকে কোনো ভোঁতা বস্তুর আঘাত লাগা, বাইরের বস্তু ঢোকা, নাক খুঁটার সময় নখের আঘাত লাগা ইত্যাদি কারণকে আমরা দায়ি করতে পারি। আবার নাকের পলিপ, সাইনোসাইটিস, প্রদাহ ইত্যাদি কারণেও রক্তপাত হতে পারে।

নাক ছাড়া শরীরের অন্যান্য জায়গায়, বিশেষ করে মাথায় আঘাত, অনিয়ন্ত্রিত উচ্চ রক্তচাপ, রক্তস্বল্পতা বা অন্য কোনো রোগ, রক্ত জমাট বাঁধতে সমস্যা হওয়া, ক্যানসার বা লিউকেমিয়া ইত্যাদিতে নাক দিয়ে রক্তপাত হতে পারে। কিছু ওষুধ যেমন অ্যাসপিরিন, আইবুপ্রফেন ইত্যাদি খেলেও রক্তপাত হতে পারে। আবার অনেক সময় নাকের রক্তপাতের কোনো কারণই খুঁজে পাওয়া যায় না।

এড়িয়ে যান

মাথা পেছনে হেলাবেন না বা মাথা উঁচু করে নাক দিয়ে নিঃশ্বাস টানবেন না। এতে নাক থেকে রক্ত গলার ভেতর দিয়ে সোজা পেটে চলে যাবে। এই রক্ত শ্বাসনালিতে চলে যাওয়াটাও ঝুঁকিপূর্ণ।

করণীয়

হঠাৎ করে নাক থেকে রক্ত পড়তে শুরু করলে ঘাবড়ে না গিয়ে সোজা হয়ে বসুন ও দুই আঙুল দিয়ে নাকটা একটু চাপ দিয়ে ধরে টেনে রাখুন। নাকের ওপরের দিকে যে শক্ত হাড় আছে, তার ঠিক নিচেই রয়েছে নরম তরুণাস্থি। ঠিক এ জায়গাটাতেই জোরে চেপে ধরতে হবে। এভাবে ৫ থেকে ১৫ মিনিট ধরে রাখুন। এ সময় নাক দিয়ে নিঃশ্বাস নেওয়াটা বন্ধ রেখে মুখ দিয়ে শ্বাস নিতে হবে। নাকের ওপর একটু বরফ দিয়ে সেঁক দিতে পারেন। যদি ২০ মিনিট পার হওয়ার পরও সমস্যার সমাধান না হলে চিকিৎসকের পরামর্শ নিন। অনেক সময় নাকের রক্তপাতের সঙ্গে মাথাব্যথা, ঝিমঝিম লাগা, কানে ভনভন শব্দ বা চোখে দেখতে সমস্যা হলে অবশ্যই জরুরি ভিত্তিতে ডাক্তারের কাছে যেতে হবে।