মেইন ম্যেনু

নাবালিকা প্রেমিকার কাণ্ড !

ছাতকে অপ্রাপ্ত বয়স্ক প্রেমিকযুগলকে নিয়ে বিপাকে পড়েছে প্রেমিকের পরিবার। পালিয়ে এসে বিয়ের দাবিতে প্রেমিকের বাড়িতে গত ৬ দিন ধরে অবস্থান করছে নাবালিকা প্রেমিকা।

প্রেমিকের পরিবার ও স্থানীয় লোকজন শত চেষ্টা করেও প্রেমিকাকে তার বাবার বাড়িতে ফেরত পাঠাতে পারছে না। চাঞ্চল্যকর এ ঘটনাটি ঘটেছে উপজেলার কালারুকা ইউনিয়নের মাধবপুর গ্রামে।

দোয়ারা উপজেলার নরসিংপুর ইউনিয়নের শারপিননগর গ্রামের আফিজ আলীর মেয়ে জেছমিন বেগমের (১২) সঙ্গে মোবাইল ফোনে প্রেমের সম্পর্ক গড়ে তুলে মাধবপুর গ্রামের আলাউদ্দিনের ছেলে মিজান। প্রায় মাসখানেক ধরে চলে আসা প্রেম বিবাহ বন্ধনে আবদ্ধ হতে গত ৬ জুন পরিবারের লোকজনের চোখ ফাঁকি দিয়ে প্রেমিকা জেছমিন পালিয়ে প্রেমিক মিজানের বাড়িতে এসে উপস্থিত হয়। বিষয়টি জানাজানি হলে প্রেমিকা জেছমিনকে তার বাবার বাড়িতে ফেরত পাঠানোর চেষ্টা করেন গ্রামের লোকজন। কিন্তু মিজানের স্ত্রী হয়ে এ বাড়িতেই থাকবে বলে ফেরত পাঠানোর সব চেষ্টা ব্যর্থ করে দেয় জেছমিন।

এদিকে জেসমিনের পরিবারও তাকে আর ফিরিয়ে না নেয়ার শর্তে অটল রয়েছে বলে জানা গেছে। বিষয়টি থানা পুলিশকে অবহিত করলেও কোনো ব্যবস্থা না নেয়ায় চরম বিপাকে পড়েছে প্রেমিক মিজানের পরিবার। প্রেমিক-প্রেমিকার উপযুক্ত বয়স না হওয়ায় তাদের বিয়েও দিতে পাড়ছে না। আবার প্রেমিকা জেছমিনকে তার বাড়িতে ফেরতও পাঠানো যাচ্ছে না। এ অবস্থায় ৬ দিন ধরে মিজানের বাড়িতেই অবস্থান করছে জেছমিন।

স্থানীয় ইউপি সদস্য আব্দুল মতিন জানান, জেসমিন নাবালিকা হলেও তার কথাবার্তা খুবই পরিপক্ক। তাকে বুঝিয়ে তার বাবার বাড়িতে ফেরত পাঠানোর সব চেষ্টা ব্যর্থ হয়ে গেছে। সে মিজানের বাড়ি থেকে না যাওয়ার শর্তে অটল রয়েছে।

ছাতক থানার ওসি হারুনুর রশীদ চৌধুরী জানান, বিষয়টি তিনি শুনেছেন। এ বিষয়ে কোনো অভিযোগ দেয়া হয়নি। উভয় পরিবার সামিজিকভাবে নিষ্পত্তির চেষ্টা করা হচ্ছে বলে তিনি শুনেছেন।