মেইন ম্যেনু

বিএনপি প্রার্থীর ব্যালটে নৌকার সিল, ভোট বর্জন

নারায়ণগঞ্জ সদর উপজেলার এনায়েতনগর ইউনিয়নে বিএনপির চেয়ারম্যান প্রার্থী এসএম আলমগীর হোসেন নারায়ণগঞ্জ সরকারি বালিকা উচ্চ বিদ্যালয় (গর্ভেন্ট গার্লস স্কুল) কেন্দ্রে ভোট দিতে যান। কিন্তু তাকে দেয়া ব্যালটে আগে থেকেই ছিল নৌকা প্রতীকে সিল মারা।

শনিবার বেলা ১১টার দিকে ওই কেন্দ্রে ভোট দিতে গিয়েছিলেন এসএম আলমগীর হোসেন।

আলমগীর অভিযোগ করেন, ‘সকাল থেকেই এ কেন্দ্রসহ এনায়েতনগরের ৯ ইউনিয়নের সব কেন্দ্র দখল করে রাখা হয়েছে। আগের দিন রাতেই ব্যালটে ভোট দেয়া হয়ে গেছে। আমি আমার নিজের ভোট দিতে পারি নাই। আমার ব্যালটে দেখি নৌকার সিল মারা। আওয়ামী লীগের লোকজন এসে কেন্দ্র দখল করে নিয়েছে।’ এরপরই তিনি নির্বাচন বয়কটের ঘোষণা দেন।

এসময় তার সঙ্গে নারায়ণগঞ্জ নগর বিএনপির সেক্রেটারি এটিএম কামাল, জেলা আইনজীবী সমিতির সাবেক সভাপতি সাখাওয়াত হোসেন খান, মহানগর ছাত্রদলের যুগ্ম-আহ্বায়ক রাশিদুর রহমান রশো প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

এদিকে সদর উপজেলার ৬টি ইউনিয়নের মধ্যে তিনটিতে বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় আওয়ামী লীগের তিনজন চেয়ারম্যান প্রার্থী জয়ী হন। এছাড়া অপর তিনটি ইউনিয়নের মধ্যে শুধুমাত্র এনায়েতনগরেই বিএনপির ধানের শীষ প্রতীকে প্রার্থী ছিল।

শনিবার সকাল ৮টায় নারায়ণগঞ্জ সদর ও রূপগঞ্জ উপজেলার ১১টি ইউনিয়নের মোট ১৯৪টি কেন্দ্রে চেয়ারম্যান ও মেম্বার পদে নির্বাচন শুরু হয়। যেখানে চেয়ারম্যান ও মেম্বার পদে নির্বাচন করছেন ৫শ প্রার্থী। প্রায় ৫ লাখ ভোটার রয়েছে মোট ১১টি ইউনিয়নে।

এছাড়াও সকাল ১১টা পর্যন্ত সদর ও রূপগঞ্জ উপজেলার ১১টি ইউনিয়ন পরিষদ নিবার্চনের কোনো ভোটকেন্দ্রে সহিংসতা বা নাশকতার খবর পাওয়া যায়নি।