মেইন ম্যেনু

নারীদের সফলতার পেছনে রয়েছে এই ৩টি কারণ

আপনি পুরুষ হন বা নারী সফল হতে হলে পরিশ্রমের বিকল্প নেই। শ্রম, বুদ্ধিমত্তা, নেতৃত্ব দানের ক্ষমতা একজন সফল ব্যবসায়ীর মাঝে থাকে বলেই তারা এক সময় সফল হন। তবে আলাদাভাবে নারীর সফলতায় আমরা বেশী বিস্মিত হই কারণ আমাদের সমাজে নারীর চলার পথ পুরুষের তুলনায় অনেক দূর্গম।

একজন নারীর দায়িত্ব থাকে বহুমূখী। তাকে পরিবারের খুঁটিনাটি এত দিকে খেয়াল রাখতে হয় যে এর বাইরে গিয়ে ক্যারিয়ার গড়ে তোলা হয়ে দাঁড়ায় খুবই কঠিন। তবু অনেক নারীই তাদের পেশায় সফলতা অর্জন করতে সক্ষম হয়েছেন। তাই বলা হয়, নারীরা মাল্টিটাস্কার। আসুন জেনে নিই, কোন ৩টি গুণ বিশেষভাবে সহযোগিতা করে একজন নারীকে সব প্রতিকূলতার মাঝেও মাথা তুলে দাঁড়াতে!

দৃঢ় প্রতিজ্ঞ
সফল নারীরা কখনো প্রতিজ্ঞা থেকে সরে দাঁড়ান না। যত প্রতিকূলতাই আসুক তারা তাদের স্বপ্ন সফল করার কাজে একান্তভাবে মনোনিবেশ করেন। আজকের নারীরা বিয়ের পর শুধু শ্বশুর বাড়ির পরিবারের দায়িত্ব নেন না, তারা নিজের পরিবারের দায়িত্বও পালন করেন। এত কাজের মাঝেও যারা সফল হতে চান তারা কখনোই ক্যারিয়ারের স্বপ্ন ছেড়ে দেন না। তাদেরকে সামনে এগিয়ে নিয়ে যায় তাদের দৃঢ়তা।

Twyla Tharp, একজন নৃত্যশিল্পী। তার লেখা বইয়ের নাম “The Creative Habit”। তিনি বলেন, ‘প্যাশন ছাড়া পৃথিবীর কোন দক্ষতাই সৃষ্টিতে পরিণত হয় না’। আপনি যদি আপনার কাজের প্রতি প্যাশনেট থাকেন তাহলে দেরিতে হলেও তার ফল পাবেন। একজন সৃষ্টিশীল মানুষ হিসেবে আপনাকে হাল ছাড়লে চলবে না, নিজেই নিজেকে উতসাহিত করতে হবে এবং পরিশ্রম করে যেতে হবে।

আত্মবিশ্বাস
সফল নারীরা ভীষণ আত্মবিশ্বাসী হন। আপনি নিজে যদি নিজের উপর বিশ্বাস না করেন অন্যরা যতই আপনার প্রশংসা করে আপনাকে শক্তি দেওয়ার চেষ্টা করুক না কেন, আপনি হেরে যেতে থাকবেন। বিপরীত দিকে আপনার পারিপার্শ্বিক অবস্থা যতই প্রতিকূল থাকুক না কেন, আপনি যদি বিশ্বাস করেন যে আপনি পারবেন, তাহলে অবশ্যই পারবেন। কারণ মানুষের শক্তি আসলে মানুষ নিজেই।

USA নেটওয়ার্কের প্রতিষ্ঠাতা কে কোপলোভিটয বলেন, ‘আপনাকে বুঝতে হবে যে, আপনি একান্তই আপনার মত করে ভাবতে পারেন এবং প্রত্যাশামত ভাবনাকে বাস্তবে রূপ দিতে পারেন। নিজের প্রতি বিশ্বাস থাকতেই হবে এবং এটাই সফলতার ভিত্তি।

ঝুঁকি নিতে ভয় না পাওয়া
ঝুঁকি ছাড়া জীবনের কি কোন মানে আছে? ঝুঁকি না থাকলে সফলতাও ধরা দেয় না। পরিবর্তনের জন্য নতুন পথ বেছে নিতে হয়। আর নতুন পথে সবসময়ই আশঙ্কা থাকে, অনিশ্চয়তা থাকে। তবু আজকে যার সফল হয়েছেন, সফলতার এই শিখরে পৌছবার পথে ঝুঁকি নিতে পিছ পা হন নি কখনো। তবে অবশ্যই ঝুঁকি নেওয়ার ব্যাপারে আপনার সিদ্ধান্ত যুক্তিযুক্ত হওয়া চাই।

আমাদের সমাজের বাস্তবতায় একজন নারীকে কখনো কখনো তার সংসার এবং ক্যারিয়ারের মাঝে যে কোন একটিকে বেছে নিতে হয়। এখন পরিস্থিতি অনেক বদলেছে। পরিবারগুলো অনেক সাপোর্ট দেয়। কিন্তু শতকরার হিসেবে তা অতি নগন্য। এর মাঝেও যেসব নারীরা সফল তাদের প্রতি বিনম্র শ্রদ্ধা।প্রিয়.কম