মেইন ম্যেনু

নারী কারারক্ষীদের স্মার্ট হওয়ার তাগিদ কারা মহাপরিদর্শকের

গাজীপুরের কাশিমপুর কেন্দ্রীয় কারা কমপ্লেক্স চত্বরে ৫০তম কারারক্ষী ও নারী কারারক্ষীদের ২৬ সপ্তাহের প্রশিক্ষণ কার্যক্রম উদ্বোধনী করা হয়েছে। শনিবার সকালে প্রধান অতিথি হিসেবে প্রশিক্ষণের উদ্বোধন করেন কারা মহাপরিদর্শক ব্রিগেডিয়ার জেনারেল সৈয়দ ইফতেখার উদ্দিন।

অনুষ্ঠানে কারা উপ-মহাপরিদর্শক মো. বজলুর রশীদ স্বাগত বক্তব্য রাখেন। এতে প্রধান প্রশিক্ষক কাশিমপুর কেন্দ্রীয় কারাগার-১’এর সিনিয়র জেল সুপার সুব্রত কুমার বালা, কাশিমপুর কেন্দ্রীয় হাই সিইকউরিটি কারাগারের সিনিয়র জেল সুপার মো. মিজানুর রহমান, কাশিমপুর কেন্দ্রীয় কারাগার-২-এর সুপার প্রশান্ত কুমার বণিক প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

কারা মহাপরিদর্শক ব্রিগেডিয়ার জেনারেল সৈয়দ ইফতেখার উদ্দিন বলেছেন, কখনো একটা প্রতিষ্ঠান কোন ধরণের প্রশিক্ষণ ছাড়া তার উৎকর্ষতা সাধন করতে পারে না। শুধুমাত্র স্কুল বা বিশ্ববিদ্যালয়ের জ্ঞান নিয়ে আসলেই বাকি দায়িত্ব পালন করা সম্ভব নয়। তাকে ন্যূনতম কিছু প্রশিক্ষণ গ্রহণ করতে হবে। তিনি বলেন, যে সব নারী কারারক্ষী স্মার্ট হতে পারবে না তাদের চাকুরি থেকে আউট করে দেব। আমরা চাই চৌকষ নারী কারারক্ষী। তিনি নারী কারারক্ষীদের পুলিশের মত স্মার্ট ও বব কাট চুল রাখার তাগিদ দিয়েছেন।

কারা মহাপরিদর্শক শরীরিক সুস্থ্যতা অর্জন করতে কঠোর পরিশ্রম ও অন্য খাবারের সাথে মিষ্টি জাতীয় খাবার খাওয়ারও পরামর্শ দেন প্রশিক্ষণার্থী কারারক্ষীদের। একই সঙ্গে তিনি বলেন, কারারক্ষীদের উচ্ছৃঙ্খলতা পরিহার করে সুশৃঙ্খল হতে হবে।

স্বাগত বক্তব্যে কারা উপ-মহাপরিদর্শক মো. বজলুর রশীদ বলেন, এ প্রশিক্ষণে ৩৪৩ জন নব নিযুক্ত কারারক্ষী প্রশিক্ষণ গ্রহণ করছেন। তাদের মধ্যে ৬৪ জন হলেন নারী। এটাই হলো এ যাবৎকালে সর্বাধিক সংখ্যক নারী প্রশিক্ষণার্থী। এ প্রক্ষিণের মেয়াদ হলো ২৬ সপ্তাহ।

পরে আইজিপি বেলুন ও পায়রা উড়িয়ে ৫০তম কারারক্ষী ও নারী কারারক্ষীদের প্রশিক্ষণ কার্যক্রম উদ্বোধন করেন। শেষে তিনি কাশিমপুর কারাগার পরিদর্শন, বন্দিরে কারাগারে খাবার মান দেখেন এবং নারী কারাবন্দী ও তাদের থাকা শিশুদের মাঝে উপহার সামগ্রী বিতরণ কেেরন।






মন্তব্য চালু নেই