মেইন ম্যেনু

নাসিরুদ্দিন শাহর প্রাণ বাঁচিয়েছিলেন ওম পুরী

তিনি চলে যাওয়ার পর তাকে ঘিরে স্মৃতিচারণা করছেন তার অন্যান্য স্বতীর্থরা। কত কত স্মৃতি। কিছু সুখের আবার কিছু দুঃখের। সম্প্রতি স্মৃতিচারণায় একটি ঘটনার কথা উঠে এসেছে। খবর জিনিউজের।

ওম পুরী আর নাসিরুদ্দিন শাহ যে দুজন ঘণিষ্ঠ বন্ধু, তা সকলেই জানেন। একবার সেই প্রাণের বন্ধুর প্রাণ বাঁচিয়েছিলেন ওম পুরী। ঝাঁপিয়ে পড়ে ছুরির আঘাত থেকে নাসিরুদ্দিন শাহ-র জীবন বাঁচিয়েছিলেন ওম পুরী। সেই ঘটনার কথা নাসিরুদ্দিন শাহ-র আত্মজীবনী বই ‘And Then One Day: A Memoir’-এ উল্লেখও রয়েছে। অনেকেই সেই ঘটনার কথা জানেন না। জানেন কী ঘটেছিল সেদিন?

বইতে নাসিরুদ্দিন শাহ লিখছেন যে, বহু বছর আগে একদিন একটি রেস্তোরাঁয়ে তার বন্ধু জসপাল তাকে ছুরি দিয়ে আঘাত করেছিল। সেই সময়ে সেই ডিনার টেবিলে উপস্থিত ছিলেন ওম পুরীও। তিনি তত্‌ক্ষণাত্‌ টেবিলে আক্রমণকারীর উপর ঝাঁপিয়ে পড়েন। এবং নাসিরুদ্দিন শাহকে আর একবার ছুরির আঘাতের হাত থেকে রক্ষা করেন। ঘটনার সঙ্গে সঙ্গে তিনি শাহ-কে পুলিস ভ্যানে করে হাসপাতালে নিয়ে যান। এতে তার জীবন বেঁচে যায়।

সে এক সিনেমার মতো ঘটনা। কীভাবে ওম পুরী সেই পরিস্থিতি থেকে নাসিরুদ্দিনকে বাঁচিয়ে ছিলেন, আর হাসপাতালে নিয়ে পৌঁছেছিলেন, তা শাহ-র বইয়ের পাতায় পাতায় লেখা রয়েছে। যা পড়লে রীতিমতো গায়ে কাঁটা দেবে।

ওম পুরী আর নাসিরুদ্দিন শাহ শুধুমাত্র সহ-অভিনেতাই ছিলেন না। তারা সহপাঠীও ছিলেন। ন্যাশনাল স্কুল অফ ড্রামা এবং পুনে ফিল্ম অ্যান্ড টেলিভিশন ইনস্টিটিউটে একসঙ্গে পড়েওছিলেন।