মেইন ম্যেনু

৬৫ রানের দুর্দান্ত জয়

নাসির চমকে ভারতকে হারালো বাংলাদেশ

প্রথম ওয়ানডে ম্যাচে ৯৬ রানের হার। তবে দ্বিতীয় ওয়ানডে ম্যাচেই দুর্দান্তভাবে ঘুঁড়ে দাড়িয়েছে বাংলাদেশ এ দল। ভারত সফরে তিন ম্যাচের ওয়ানডে সিরিজের দ্বিতীয় ম্যাচে ৬৫ রানের দারুণ এক জয় পেয়েছে মুমিনুল শিবির। ব্যাট বল হাতে চমক দেখিয়েছেন নাসির হোসেন। অপরাজিত সেঞ্চুরির পাশাপাশি বল হাতে নিয়েছেন ৫টি উইকেট। শুক্রবার ব্যাঙ্গালুরুতে চমক লাগানো এই জয়ে তিন ম্যাচ সিরিজে ১-১ ব্যবধানে সমতা আনল বাংলাদেশ শিবির।

এর আগে টসের প্রতিকূলে ব্যাট করতে নেমে শুরুতে ব্যাটিং বিপর্যয়ে পড়েছিল বাংলাদেশ এ দল। তবে নাসির হোসেনের অপরাজিত সেঞ্চুরির উপর ভর করে ৮ উইকেটে ২৫২ রান সংগ্রহ করে মুুমিনুল শিবির। লিটন দাস করেন ৪৫ রান। এনামুল হক বিজয় ৩৪ ও সৌম্য সরকার করেন ২৪ রান।

জবাবে ব্যাট করতে নেমে শুরুটা ভালোই ছিল ভারতের। তবে স্বাগতিকদের আস্তে আস্তে চেপে ধরে নাসির-রুবেলরা। ১১৯ রানে দুই উইকেট খোয়ানো ভারত পরের ছয়টি উইকেট হারিয়েছে ১৫৭ রানের মধ্যে। তবে নবম উইকেট জুটিতে কিছুটা ভয় ধরিয়ে দিয়েছিলেন গুরুকিরাত সিং ও কালারিয়া। দলীয় ১৮৩ রানের মাথায় কালারিয়াকে সাজঘরে পাঠিয়ে নিজের পঞ্চম উইকেট তুলে নেন নাসির হোসেন। শেষটা মধুর করেছেন পেসার আল আমিন। ৩৪ রান করা গুরুকেরাতকে সরাসরি বোল্ড করে জয়ের উৎসবে দলকে মাতান তিনি। শেষ পর্যন্ত ভারত এ দল ৪২.২ ওভারে অল আউট হয় ১৮৭ রানে।

ভারতের হয়ে সর্বোচ্চ ৫৬ রান করেন অধিনায়ক উন্মুখ চাদ। এছাড়া পাণ্ডে ৩৬ ও ওপেনার আগারওয়াল করেন ২৪ রান। বাংলাদেশের হয়ে বল হাতে সর্বোচ্চ ৫ উইকেট নেন সেঞ্চুরিয়ান নাসির হোসেন। চারটি উইকেট নিয়েছেন পেসার রুবেল হোসেন। একটি উইকেট পান আল আমিন।

তিন ম্যাচের ওয়ানডে সিরিজের প্রথমটিতে গত বুধবার ৯৬ রানের বড় পরাজয় নিয়ে মাঠ ছাড়ে মুমিনুল হকের দল। দ্বিতীয় ওয়ানডেতে এল জয়। ফলে সিরিজে সমতা। আগামী ২০ সেপ্টেম্বর ব্যাঙ্গালুরুরে চিন্নাস্বামী স্টেডিয়ামে অনুষ্ঠিত হবে তৃতীয় ও শেষ ওয়ানডে। ঐ ম্যাচেই হবে সিরিজ নির্ধারণ।

বাংলাদেশ ‘এ’ দল: মুমিনুল হক (অধিনায়ক), এনামুল হক, রনি তালুকদার, সৌম্য সরকার, লিটন কুমার দাস, সাব্বির রহমান, নাসির হোসেন, আরাফাত সানী, রুবেল হোসেন, আল-আমিন হোসেন ও শফিউল ইসলাম।

ভারত ‘এ’ দল: উন্মুখ চাঁদ (অধিনায়ক), মানাক আগারওয়াল, মনিষ পান্ডে, সুরেশ রায়না, করুন নায়ার, সঞ্জু স্যামসন, গুরকিরাত সিং, রিশি ধাওয়ান, কর্ন শর্মা, রুশ কালারিয়া ও শ্রীনাথ অরবিন্দ।



« (পূর্বের সংবাদ)