মেইন ম্যেনু

নায়িকা নয়, একজন অভিনেত্রী হতে চান তমা মির্জা

নায়িকা নয়। একজন অভিনেত্রী হিসেবেই নিজেকে প্রতিষ্ঠিত করতে চান তমা মির্জা। এছাড়া যে সিনেমা সপরিবারে দেখা যাবে না, এমন সিনেমাতে কাজ করার কোনো ইচ্ছে নেই তার। এমটিনিউজ-এর সাথে একান্ত সাক্ষাৎকারে তিনি এই কথা বলেন।

তমা বলেন, আমি আজ পর্যন্ত যত সিনেমা করছি, সব সপরিবারে দেখার মত। আর আমার পরিবার আছে, পরিবারের সবাই দেখে, পরিবারে আমার একটি সম্মান আছে। শুধু পরিবারে নয় বাহিরেও একটা সম্মান আছে সুতরাং খোলামেলা অভিনয় করার প্রশ্ন আসে না।

সম্প্রতি তমা মির্জা কলকাতার জনপ্রিয় চিত্রনায়ক জিৎ, সোহম, ও হিরণের বিপরীতে পৃথক তিনটি সিনেমায় চুক্তিবদ্ধ হয়েছেন। গুণী নির্মাতার রাজ চক্রবর্তী ওই তিনটি সিনেমা পরিচালনা করবেন।

এছাড়াও জিবাংলা সিনেমার জন্য ‘মিশন সাকসেস’ নামের একটি সিনেমাতেও চুক্তি হয়েছেন তমা। রাজ চক্রবর্তী প্রা: লি: এর প্রযোজনায় ছবিটি পরিচালনা করবেন সোনালী রায়। এই ছবিতে তমার নায়ক হিসেবে থাকছেন কৌশিক ব্যানার্জী।

এদিকে একের পর এক কলকাতার সিনেমাতে চুক্তিবদ্ধ হচ্ছেন তমা। এর পিছনে বিশেষ কোনো কারণ আছে কিনা? এমন প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, আমি একজন ভাল অভিনেত্রী হিসেবে নিজেকে প্রতিষ্ঠিত করতে চায়। আর এজন্য ভাল পরিচালক এর দরকার। আর রাজ দা আমাকে সুন্দর ভাবে তুলে ধরতে পারবে। এজন্য সেখানে কাজ করছি।

সুযোগ হলে কলকাতায় যদি স্থায়ী হওয়ার ইচ্ছে আছে এই অভিনেত্রীর। অভিনয়ের স্বার্থে নিজেকে উজাড় করে দিয়েই অভিনয় করতে চান।

ইমরান হাশমির বিপরীতে নুসরাত ফারিয়া প্রসঙ্গে তমা বলেন, ফারিয়া কে চিনানা। তবে আমি মনে করি আমি বাঙালী। বাংলা চলচ্চিত্র নিয়ে কাজ করা টাই ভাল। আর ওই চলচ্চিত্র গুলোতে কাজ করলে চরিত্রের উপর প্রভাব ফেলতে পারে। আর ইমরান হাশমির চরিত্র কত ভাল সবাই জানে।

বর্তমানে তমা ব্যাস্ত আছেন সিলেটে মারিয়া তুষার পরিচালিত ‘গ্রাস’ সিনেমার শুটিং নিয়ে। আজ (শুক্রবার) সিলেট থেকে পুরো টীম দিনাজপুরে যাবেন। সেখানে দুই তিনদিন স্বপ্নপুরীতে শুটিং হবে।

এছাড়া ঈদের পরপরই কলকাতা যাচ্ছেন তিনি মিশন ‘সাকসেস’ সিনেমার শুটিং এর জন্য। এছাড়াও বাংলাদেশে কামরুজ্জান মাস্টার পরিচালিত ‘বিষাক্ত ইয়াবা’ নামের একটি সিনেমাতে চুক্তিবদ্ধ হয়েছেন তমা। এ ছবিতে তার বিপরীতে আছেন নবাগত শাহ রিয়াজ।

এছাড়াও দীর্ঘ ৩বছর পর আবার শুরু হচ্ছে তমা মির্জা অভিনীত সৌভাগ্য চলচ্চিত্রের কাজ। এ ছবিটির ৫ শতাংশ কাজ বাকী রয়েছে।

এ পর্যন্ত মেধাবী এ অভিনেত্রীর মোট ১৭টি সিনেমা মুক্তি পেয়েছে। যার ১৪টিতে তিনি একক নায়িকা হিসেবে অভিনয় করেছেন।

এছাড়া তমা অভিনীত ছবিগুলোর মধ্যে মুক্তির অপেক্ষায় আছে, শাহাদাৎ হোসেন লিটন’র ‘মন বোঝেনা’ এ ছবিতে তার নায়ক আরেফিন শুভ। মোস্তাফিজুর রহমান বাবুর ‘প্রেমের অধিকার’ এ ছবিতে তার বিপরীতে আছেন অভি। এম বি মানিক এর ‘সৌভাগ্য’ এ ছবিতে তার সাথে আছেন ডিপজল, মৌসুমী, কাজী মারুফ। নারর্গীস আক্তারের এর ‘বিয়ের বাজার’ এতে তার নায়ক ইমন এবং এম বি মানিক এর ‘ভাবির আদর’ এ ছবিতে তার নায়ক হচ্ছেন ফেরদৌস।

তমা মির্জার শৈশব-কৈশোর কেটেছে বাগেরহাটের কচুয়ায়। সেখানে মাধ্যমিক পাশ করে রাজধানীর সিদ্ধেশ্বরী গার্লস কলেজ থেকে ব্যবসায় শিক্ষা বিভাগে উচ্চমাধ্যমিক পরীক্ষায় অংশগ্রহণ করেন তিনি। ছোটবেলার স্বপ্ন ল-ইয়ার হিসেবে নিজেকে প্রতিষ্ঠিত করার লক্ষ্যে বর্তমানে মানারাত ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটিতে আইন বিষয়ে পড়াশোনা করছেন। তমা মির্জার ছোট একটি ভাই রয়েছে, তার নাম তুর্য। পরিবারে অন্যান্যদের মধ্যে রয়েছে রিটায়ার্ড বাবা এবং গৃহিনী মা।