মেইন ম্যেনু

নিজের মানসিক অবস্থার যত্ন নিন সঠিক ১০টি কৌশলে

মানুষের চিন্তার প্রকৃতি, তার উপলব্ধি এবং জীবনের উত্থান-পতনের সময়ে তাঁর আচরণই তার মানসিক অবস্থাকে নির্দেশ করে। আপনার জীবনাচরণ এর সামান্য কিছু পরিবর্তন এর মাধ্যমে আপনি আপনার মানসিক অবস্থার উন্নতি ঘটাতে পারেন। এর জন্য আপনাকে অনেক ভাগ্যবান হওয়ার প্রয়োজন নেই। আপনাকে এর জন্য অনেক সময় ও খরচ করতে হবে না। এবার তাহলে জেনে নেয়া যাক সেই ১০ টি সহজ উপায় যা অনুসরণ এর ফলে আপনি নিজের প্রতি আরও যত্নবান হবেন এবং জীবনকে আরো বেশি উপভোগ করতে পারবেন।

১। আপনার অনুভূতি নিয়ে কথা বলুন

আপনি যখন কোন সমস্যায় পড়বেন তখন সেটা মোকাবেলা করুন এবং বিষয়টি নিয়ে কথা বলুন।

২। ভালো খাবার খান

আমরা কি খাই এবং কি অনুভব করি এই দুটি বিষয় এর মাঝে যোগসূত্র আছে। যেমন- ক্যাফেইন ও চিনি তাৎক্ষণিক প্রভাব ফেলতে পারে। এছাড়াও খাদ্য আপনার মানসিক আবস্থার উপর দীর্ঘমেয়াদি প্রভাব ও ফেলতে পারে।

৩। যোগাযোগ রাখুন

আপনার পরিবার ও বন্ধু বান্ধব আপনার প্রতি যত্নশীল। তাঁদের সাথে আপনার সমস্যাটি নিয়ে কথা বলুন দেখবেন তাঁরাই আপনাকে সক্রিয় করে তুলবেন এবং আপনার সমস্যার বাস্তবমুখি সমাধান ও খুঁজে দিতে পারবেন।

৪। বিরতি নিন

কিছু সময় এর জন্য হলেও আপনার কাজ থেকে বিরতি নিন যা আপনাকে কঠিন চাপ সামলাতে সাহায্য করবে।

৫। নিজেকে স্বীকার করে নিন

কোন কোন মানুষ অন্যদের হাসাতে পারে, কেউ অঙ্কে খুব ভাল, কেউ খুব ভাল রান্না করতে পারে, কেউ আছেন তাদের জীবনধারা অন্যদের সাথে ভাগ করে নিতে পছন্দ করেন, আবার এর বিপরীত ধরনের ও অনেকেই আছেন। আমরা প্রত্যেকেই আলাদা। কেউ কারো মতো না, এটা স্বীকার করে নিতে হবে।

৬। সক্রিয় থাকুন

বিশেষজ্ঞরা বিশ্বাস করেন ব্যায়াম এর ফলে মানুষের মস্তিস্ক এমন কিছু রাসায়নিক পদার্থ নিঃসরণ করে যার ফলে মানুষ ভাল অনুভব করে । নিয়মিত ব্যায়াম এর ফলে মানুষের আত্মসম্মান বোধের উন্নতি হয়, মনোযোগ বাড়ে , ভাল ঘুম হয় এবং ভাল অনুভব করে। ব্যায়াম মস্তিস্ক ও শরীরের গুরুত্বপূর্ণ অঙ্গ সমূহকে স্বাস্থ্যবান রাখে।

৭। পান করুন বুদ্ধিমানের মত

কিছু কিছু মানুষ তাদের মেজাজ পরিবর্তনের জন্য মদ্য পান করেন। কেউ কেউ আবার ভয় ও একাকীত্ব দূর করার জন্য মদ্য পান করে থাকেন। কিন্তু এর প্রভাব খুবই সাময়িক।

৮। সাহায্য চান

আমরা কেউই সুপারম্যান না, তাই যখনই কোনকিছু ভুল হতে থাকে তখন আমরা হতবিহবল বা ক্লান্ত হয়ে পড়ি। যখনই মনে হবে যে আর মানিয়ে চলা সম্ভব না তখনই কারো কাছে সাহায্য চাওয়া উচিত।

৯। আপনি যে কাজে দক্ষ তা করুন

আপনি কি করতে পছন্দ করেন? আপনি যখন সময়কে উপভোগ করতে পারবেন তখই চাপমুক্ত হতে পারবেন। তাই এমন কোন কাজটি করতে আপনি পছন্দ করেন যা করার সময় আপনি কাজটিতে সম্পূর্ণ ডুবে যেতে পারেন সেটি খুঁজে বের করুন। কারণ এই কাজটিতেই আপনি দক্ষ এবং এই কাজের দ্বারাই আপনি কিছু অর্জন করতে পাড়বেন যা আপনার আত্মমর্যাদা বোধ বৃদ্ধি করবে।

১০। অন্যদের ব্যাপারে যত্নশীল হন

আপনার কাছের মানুষদের ব্যাপারে আপনি যখন যত্নশীল হবেন তখন তাদের সাথে আপনার সম্পর্কটা আরো ঘনিষ্ঠ হবে।

তথ্যসুত্র: 10 Ways to Look After Your Mental Health, mentalhealth.org.uk

Improving Emotional Health, helpguide.org

10 tips to stay mentally healthy, Better Health Channel

10 Quick And Easy Ways To Improve Your Mental Health, Psych Central