মেইন ম্যেনু

নিজের সম্পর্কে এই কথাগুলো ‍ভুলেও কাউকে বলবেন না

প্রিয় কোন মানুষ বা বন্ধু পেলে আমরা অনেকেই কথা খৈ ফোটাই। এই ফাঁকে নিজের অনেক গোপন কথাই হরবর করেই বলে দিতে থাকি তার কাছে। যা আগামীদিনের জন্য নিজেই নিজের ক্ষতির রাস্তা তৈরি করে রাখছি। যারদ্বারা একসময় আমরা চরম ক্ষতির মুখে পতিত হই।

মনোবিজ্ঞানী কিংবা সমাজবিজ্ঞানীরা বলছেন, কিছু কিছু কথা কখনোই কারো কাছে বলা উচিৎ নয়। তাহলে কোন কোন কথা? এমন প্রশ্নের উত্তরে তারা বলছেন, অন্তত ৫টি বিষয় সম্পর্কে কারোর সঙ্গে আলোচনা না করাই ভাল। কী সেই বিষয়গুলি?

নিজের জীবনযাপনের ধরন সম্পর্কে : আপনি কেমনভাবে জীবনযাপন করেন সেই বিষয়ে কথা বলতে গেলে অনেকেই আপনার সম্পর্কে ভুল ধারণায় উপনীত হতে পারে। বিশেষত যদি আপনার জীবনযাপনের কোনও অংশ তাদের কাছে আপত্তিকর বলে মনে হয়।

তাছাড়া ভেবে দেখুন, আপনি কেমনভাবে জীবনযাপন করেন, তা একান্তভাবেই আপনার ব্যক্তিগত বিষয়। সে সম্পর্কে কেউ খারাপ কিছু ভেবে নিয়ে আপনাকে যদি ভুল চোখে দেখে, তাহলে তা মোটেই ভাল ব্যাপার হয় না। কাজেই আপনার জীবনযাপনের ধরণ আপনার মধ্যেই গোপন থাক।

জীবনের উন্নতি সম্পর্কে : আপনি আপনার জীবনে যদি বিশেষ কোনও উন্নতি করে থাকেন তাহলে সেই উন্নতির আলাদা মূল্য রয়েছে আপনার কাছে। অন্যদের কাছে সেই উন্নতির মূল না-ও থাকতে পারে। কাজেই আপনি যদি আপনার জীবনের উন্নতি নিয়ে অন্যদের সামনে কথা বলতে শুরু করেন এবং তাদের অনুপ্রাণিত করতে চান, তাহলে অধিকাংশ মানুষেরই ধারণা হবে, আপনি অহংকার করছেন। পরিণামে তারা দূরে সরে যাবেন। কাজেই নিজের উন্নতির কথা নিজের মাঝেই রাখুন।

নিজের পারিবারিক সমস্যা সম্পর্কে : প্রত্যেক পরিবারেই কিছু না কিছু সমস্যা থাকে। আপনার পরিবারেও রয়েছে। কিন্তু সেই সমস্যার কথা পরিবারের বাইরের লোকেদের বললে কী সমস্যার সমাধান হবে? বরং এই নিয়ে অন্যদের মধ্যে অনভিপ্রেত আলোচনা শুরু হবে। তার চেয়ে পারিবারিক সমস্যা পরিবারের মধ্যেই সীমাবদ্ধ থাক। পরিবারের অন্যদের সঙ্গে মিলে সেই সমস্যার সমাধানে প্রয়াসী হন।

নিজের জীবনের মহৎ কাজগুলি সম্পর্কে : আপনি আপনার জীবনে ভাল কাজ নিশ্চয়ই করেছেন। কিন্তু সেরকম কাজ প্রত্যেকেই নিজের জীবনে, দু’ একটা হলেও, করে থাকেন। আপনার জীবনে যদি তেমন মহৎ কর্তব্যের সংখ্যা যথেষ্ট বেশি হয়ে থাকে, তাহলে সে সম্পর্কে অন্যদের সামনে বলে বেড়ানোর দরকার নেই। ভাল কাজ করাতেই আনন্দ, সেই কাজের কথা ঢাক-ঢোল পিটিয়ে বলাতে কি আনন্দ আছে? বরং এইসব কথা বললে, অন্যরা মনে করবে, আপনি তাদের নীচু নজরে দেখছেন। কাজেই এই বিষয়ে স্পিকটি নট থাকুন।

নিজের জীবনের প্রধানতম স্বপ্ন সম্পর্কে : কোনও একটা বিশেষ স্বপ্ন বুকে আঁকড়ে ধরে নিশ্চয়ই এগিয়ে চলেছেন আপনি? সেই স্বপ্নে সার্থকতাই আপনার জীবনের চরম লক্ষ্য। এই লক্ষ্য পূরণ আপনাকেই করতে হবে, সেই স্বপ্নের বাস্তবায়নের আনন্দ আপনিই উপভোগ করবেন। কাজেই সেই স্বপ্নের কথা অন্যকে বলে কী লাভ? বরং অন্যদের সঙ্গে এইসব কথা শেয়ার করতে গেলে হয়তো এমন কিছু নেতিবাচক কথা আপনাকে শুনতে হবে যাতে আপনি মুষড়ে পড়বেন। কাজেই এই কথাটিও গোপনই থাক।