মেইন ম্যেনু

নিদ্রাহীনতায় বাড়ে হার্ট অ্যাটাকের সম্ভাবনা

নিয়মিত সঠিকভাবে ঘুম না হওয়ার কারণে ব্লাড প্রেসার, হার্ট অ্যাটাকসহ বড় বড় সমস্যা তৈরি হয় বলে জানিয়েছেন হলি ফ্যামিলি রেড ক্রিসেন্ট মেডিকেল কলেজের প্রিন্সিপাল অধ্যাপক ডা. মনিরুজ্জামান ভূইঁয়া।

শনিবার (১৯ মার্চ) দুপুরে ঢাকা রিপোর্টাস ইউনিটি (ডিআরইউ)’র সাগর-রুনি মিলনায়তনে বিশ্ব নিদ্রা দিবস উপলক্ষে অ্যাসোসিয়েশন অফ সার্জন্স ফর স্লিপ এপনিয় (ইএনটি) বাংলাদেশের আয়োজনে অনুষ্ঠিত আলোচনা সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি একথা বলেন।

অধ্যাপক মনিরুজ্জামান বলেন, ‘অনিদ্রা দূর করার জন্য কিছু ট্রিপস আছে। যাদের ঘুম হয় না তারা কিছুক্ষণ হাঁটাহাঁটি করতে পারেন। ব্যায়াম করতে পারেন। খাওয়ার ২ ঘণ্টা পর বিছানায় যাবেন। বেডরুমে উদ্দীপক লাইট না রেখে ডিম লাইট ব্যবহার করবেন।’

ঘুম বা নিদ্রা খুবই দরকারি একটি বিষয়। কিন্তু নানা কারণে অনেকেরই কাঙ্ক্ষিত মাত্রায় ঘুম হয় না। আর তাই নিদ্রাহীনতাজনিত সমস্যা এবং এর জটিলতা বিষয়ে অবহিতকরণ এবং সচেতনতা বৃদ্ধির লক্ষ্যে প্রতিবছর ১৮ মার্চ সারা বিশ্বে পালিত হয় ‘বিশ্ব নিদ্রা দিবস’। এ বছর এই দিবসের প্রতিপাদ্য বিষয় হচ্ছে ‘সুখ নিদ্রা সহজলভ্যতা’।

আলোচনা সভায় বক্তারা জানান, ঘুমের সমস্যা শিশু থেকে বৃদ্ধ সকলেরই হতে পারে। বয়স ভেদে এর কারণেও ভিন্নতা থাকে। শিশুদের ক্ষেত্রে সাধারণত এডিনয়েড ও টনসিলের অস্বাভাবিক বৃদ্ধিজনিত কারণে ঘুমের ব্যাঘাত ঘটে থাকে।

বক্তারা বলেন, ‘বড়দের ক্ষেত্রে নাকের হাড় বাঁকা, বড় আকারের টনসিল, নাকের পলিপ এবং সর্বোপরি অতিরিক্ত ওজন বৃদ্ধিই এর মূল কারণ। যারা নাক ডাকেন তাদের মধ্যে অনেকেরই ঘুমের মধ্যে দমবন্ধ হওয়ার ঘটনা থাকে। এই দমবন্ধ হওয়ার বিষয়টি নিয়মিতভাবে অল্প সময়ের জন্য হতে থাকে। কারণ নির্ধারণ করে চিকিৎসা না করলে এতে করে হতে পারে নানা ধরনের স্বাস্থ্য সমস্যা। সাধারণভাবে এই স্বাস্থ্য সমস্যার নাম ওএসএ (অবস্ট্রাকটিভ স্লিপ এপনিয়া) অর্থাৎ নিদ্রাকালীন শ্বাসবদ্ধতা।’

বক্তরা বলেন, ‘এই সমস্যায় ভোগা বেশিরভাগ রোগীরই ওজন বেশি থাকে, সাথে শ্বাসের পথে বাধাগ্রস্ততা থাকে। কাজেই ওজন কমানোই প্রথম চিকিৎসা, তবে শ্বাসের পথে বাধাসৃষ্টিকারী অবধারিত সমস্যা থাকলে অপারেশন করিয়ে নিতে হবে।’

অ্যাসোসিযেশন অফ সার্জন্স ফর স্লিপ এপনিয় বাংলাদেশ (এএসএসএবির) প্রেসিডেন্ট প্রফেসর ডা. এসএম খোরশেদ মজুমদারের সভাপতিত্বে আলোচনা সভায় অন্যদের মধ্যে অংশ নেন- ইএনটির নির্বাহী পরিচালক ডা. মো. আবদুল্লাহ, বঙ্গবন্ধু মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয় কলেজের নাক, কান, গলা বিশেষজ্ঞ অধ্যাপক ডা. কামরুল হাসান তালুকদার ও হলি ফ্যামিলি রেড ক্রিসেন্ট মেডিকেল কলেজের পরিচালক বিগ্রেডিয়ার মো. (অব) ডা. শওকত আলী প্রমুখ।