মেইন ম্যেনু

নিরাপত্তার বেষ্টনিতে চট্টগ্রামে: কাল শুরু শারদীয় দুর্গোৎসব

নীল আকাশে সাদা মেঘের সারিসারি ভেলা, অপরূপ সৌন্দর্যকে হাতছানি দিয়ে ডাকছে আর ভোরে শিউলি ফুলের গন্ধে মন মাতানো চারপাশ। শরতের শুরুতে শারদীয় পূজার ঢাক পড়ল সনাতন ধর্মে, চারদিক মুখরিত দেবীর বন্দনায়। দেবী দুর্গার বোধনের মধ্য দিয়ে দেবীর আগমনধ্বনি আজ রোববার অনুরণিত হতে যাচ্ছে।

চারদিকে দেবী দুর্গার আগমনে আনন্দের আয়োজন। সমগ্র চট্টলাকে ভিন্ন ভিন্ন সাজ-সজ্জায় রঙ্গিন করে তুলেছে। এখন মণ্ডপে মণ্ডপে বাজছে আনন্দময়ীর আগমনী স্মৃতি। শারদী দুর্গাপূজা উপলক্ষে হিন্দু সম্প্রদায়ের ঘরে ঘরে এখন আনন্দের স্রোতধারা। পূজামণ্ডপ থেকে শুরু করে বিপণী বিতান সবখানেই এখন পূজার আমেজ। মার্কেটগুলোতে এখন শেষ মুহূর্তের কেনাকাটায় ব্যস্ত সময় পার করছে পুজারী ও দোকানীরা।

এদিকে শারদীয় দুর্গাপূজায় আইনশৃঙ্খলা পরিস্থিতি স্বাভাবিক রাখতে বাড়তি নিরাপত্তা ব্যবস্থার অংশ হিসেবে গতকাল থেকে বিজিবি মোতায়েন করা হয়েছে। যেকোন ধরনের অপ্রীতিকর ঘটনা এড়াতে নগরী ও জেলায় দশ প্লাটুন বিজিবি মোতায়েনের সিদ্ধান্ত হয়েছে।

আজ বোধন ও কাল ষষ্ঠীর মধ্যদিয়ে সারা দেশে মহাধুমধামে শুরু হচ্ছে হিন্দু সম্প্রদায়ের সবচেয়ে বড় ধর্মীয় উৎসব শারদীয় দুর্গাপূজা। ঢাকের বোল, কাঁসর ঘণ্টা, শাঁখের ধ্বনিতে মুখর হয়ে উঠবে সারা দেশের পূজামণ্ডপ। বছর ঘুরে দেবীর আগমনিবার্তায় উৎসবের আমেজ এখন প্রতিটি মণ্ডপে। মণ্ডপে প্রতিমা তৈরির কাজসহ উৎসবের আনন্দময় প্রস্তুতি প্রায় শেষ।

তবে পূজার আনুষ্ঠানিকতা পুরোপুরি শুরু হবে সোমবার ষষ্ঠী পূজার মধ্যদিয়ে। সোমবার সায়াংকালে দেবীর আমন্ত্রণ ও অধিবাস, মঙ্গলবার মহা সপ্তমী। চট্টগ্রামের ঐতিহ্যবাহী পূজা মণ্ডপগুলো এবারও রংয়ে-ঢংয়ে তৈরি করা হয়েছে। এ বৎসর পূজা মণ্ডপে স্থান পেয়েছে- সামাজিক, প্রাকৃতিক, মানবতা ও ধর্মীয় এবং বিনোদননির্ভর আবহ।

আগামী ১৯ অক্টোবর ষষ্ঠীতে দশভুজা দেবী দুর্গার আমন্ত্রণ ও অধিবাসের মধ্য দিয়ে চট্টগ্রামসহ সারাদেশে শুরু হবে পূজার আনুষ্ঠানিকতা। এরপর ২০ অক্টোবর মহাসপ্তমী এবং ২১ অক্টোবর মহাঅষ্টমী ও কুমারী পূজা। সনাতন পঞ্জিকা মতে এবার ২২ অক্টোবর একই দিনে মহানবমী ও বিজয়া দশমী পড়ায় ওই দিন দর্পণ বিসর্জন হবে। তবে সারাদেশে ২৩ অক্টোবর বিজয়া শোভাযাত্রা সহকারে প্রতিমা বিসর্জনের সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে।

পূজায় নিরাপত্তা চট্টগ্রামে বিজিবি মোতায়েন শারদীয় দুর্গাপূজায় আইনশৃঙ্খলা পরিস্থিতি স্বাভাবিক রাখতে বাড়তি নিরাপত্তা ব্যবস্থার অংশ হিসেবে গতকাল থেকে বিজিবি মোতায়েন করা হয়েছে। যেকোন ধরনের অপ্রীতিকর ঘটনা এড়াতে নগরী ও জেলায় দশ প্লাটুন বিজিবি মোতায়েনের সিদ্ধান্ত হয়েছে।

পরবর্তী নির্দেশ না দেয়া পর্যন্ত বিজিবি সদস্যরা মাঠে থাকবে। এ বৎসর চট্টগ্রাম জেলা ও নগরীতে সবমিলিয়ে মোট এক হাজার ৯৪৩ টি মণ্ডপে দুর্গাপূজা হবে।