মেইন ম্যেনু

নির্বাচনী সহিংসতায় ও পুলিশের মামলায় নহাটায় ১০ গ্রামের মানুষ বাড়িছাড়া

মাগুরা প্রতিনিধি: মাগুরার মহম্মদপুর উপজেলার নহাটা ইউনিয়ন এখন ধ্বংসস্তুপ ও আতঙ্কের জনপদ। ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনকে সামনে রেখে আওয়ামীলীগ চেয়ারম্যান প্রার্থীর সমর্থকদের তা-ব ও পুলিশের মামলায় এলাকার অন্তত ১০ গ্রামের মানুষ এখন বাড়িছাড়া। ভোটের মাঠে শুধু নৌকা ছাড়া আর কোন প্রার্থীর প্রচার নেই। চতুর্থ দফার তফসিলে ৭ মে এখানে ভোট গ্রহন অনুষ্ঠিত হবে।

ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনকে সামনে রেখে এলাকায় আধিপত্য বিস্তার নিয়ে আওয়ামলীগ মনোনীত প্রার্থী আলী মিয়া ও আ.লীগ বিদ্রোহী প্রার্থী বর্তমান চেয়াম্যান মোস্তফা সিদ্দিকী লিটনের সমর্থকরা দেশীয় অস্ত্রশস্ত্রে সজ্জিত হয়ে গত ২ মে সোমবার নহাটা ইউনিয়নের পাঁচটি স্থানে ধাওয়া প্ল্টাা ধাওয়ায় লিপ্ত হয় । পুলিশ ১২০ রাউ- রাবার বুলেট ও টিয়ার শেল ছুড়ে পরিস্থিতি কিছুটা নিয়ন্ত্রনে আনে। পরে আলী মিয়ার সমর্থকরা পাঁচটি গ্রামে লিটনের সমর্থকদের শতাধিক বাড়িঘরে হামলা ভাংচুর ও লুটপাট চালায়।

এসব ঘটনায় পুলিশের কাজে বাধা ও হামলার অভিযোগে মহম্মদপুর থানার এস আই নূরুজ্জামান এবং এসআই কবির হোসেন বাদি হয়ে দুটি মামলা করেছেন। এ দুটি মামলায় ৪৪ জনের নাম উল্লেখ করা ছাড়াও অজ্ঞাত আরো পাঁচশ’ জন আসামি রয়েছে বলে উ্েল্লখ করা হয়েছে। ফলে গ্রেফতার আতঙ্কে আ.লীগ বিদ্রোহি প্রার্থী, বিএনপি প্রার্থী ও বিএনপি বিদ্রোহী প্রার্থীর সমর্থক গ্রাম ছেড়ে পালিয়ে গেছেন।