মেইন ম্যেনু

‘নির্বাচনের নামে আবারো তামাশা করা হলো’

নির্বাচনের নামে সরকার জাতির সাথে আবারো তামাশা করা হলো মন্তব্য করে ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশের আমির ও চরমোনাই পীর মুফতী সৈয়দ মুহাম্মাদ রেজাউল করীম বলেছেন, ‘গত তিন সিটি নির্বাচন ও ৩০ ডিসেম্বর অনুষ্ঠিত পৌর নির্বাচনে সীমাহীন ভোট জালিয়াতির পর জাতি আশা করেছিল ১০ পৌরসভা নির্বাচনে হয়তো নিরপেক্ষ করে সরকার নিজেদের প্রমাণ করার চেষ্টা করবে, কিন্তু সরকার তা করতে ব্যর্থ হয়েছে।’

রোববার রাতে গণমাধ্যমে পাঠানো এক বিবৃতিতে তিনি একথা বলেন।

ইসলামী আন্দোলনের আমীর বলেন, ‘পৌরসভা নির্বাচনে জাতি আবারো প্রত্যক্ষ করলো এক আজব নির্বাচনের। জাতি অবাক বিস্ময়ে দেখেছে যে, ইতিহাসের সবচেয়ে ভয়াবহ ভোট ডাকাতি, জালিয়াতী, কেন্দ্র দখলের ঘটনা ঘটেছে এবং ইসলামী আন্দোলনের এজেন্টসহ বিরোধী দলের এজেন্টদের প্রহার করে কেন্দ্র থেকে বের করে দিয়ে নির্বাচনের মাজা ভেঙ্গে দেয়া হয়েছে।’

রেজাউল করীম বলেন, ‘নির্বাচন কমিশনের মত একটি সাংবিধানিক প্রতিষ্ঠানকে সরকার ধ্বংস করে দিয়ে নির্বাচন কমিশনকে আজ্ঞাবহ ও দলীয় কমিশনে পরিণত করেছে। নির্বাচনে জনগণের আগ্রহ ও ইচ্ছাকে ধুলিসাৎ করে দেওয়া হয়েছে। ভবিষ্যতে নির্বাচন দিয়ে আর ভোটারদের কোন আগ্রহ থাকবে না। এ ধরণের প্রহসনমূলক নির্বাচনের ফলে আমাদের ভবিষ্যৎ প্রজন্মও ভোটের প্রতি অনীহা প্রকাশ করবে ফলে দেশ ক্রমেই ভয়াবহ সহিংসতার দিকে ধাবিত হবে।’

চরমোনাই পীর বলেন, ‘নির্বাচনের নামে সরকার জাতির সাথে তামাশা করেছে। এতে করে আবারো প্রমাণিত হলো দলীয় সরকারের অধীনে সুষ্ঠু ও নিরপেক্ষ নির্বাচন অনুষ্ঠিত হতে পারে না। কাজেই সংবিধানে তত্ত্বাবধায়ক সরকারের বিল পুনরায় সংযোজন করতে হবে।’