মেইন ম্যেনু

নির্বাচনের বিষয়ে শিগগিরই সিদ্ধান্ত : সু চি

মিয়ানমারের আসন্ন জাতীয় নির্বাচনে তার দল লড়াই করবে কি না, শিগগিরই সে সিদ্ধান্ত নেওয়া হবে বলে জানিয়েছেন বিরোধীদলীয় নেতা অং সান সু চি।

ইয়াংগুনে ন্যাশনাল লীগ ফর ডেমোক্রেসি (এনএলডি) দলের বার্ষিক সভায় ভাষণ দেওয়ার সময় এ কথা বলেন সু চি।

এক প্রতিবেদনে শনিবার এ খবর দিয়েছে বার্তা সংস্থা এএফপি।

খবরে বলা হয়, দীর্ঘ ২৫ বছর নির্বাচনে লড়েনি সু চির এনএলডি। তবে দরটির বিশ্বাস, চলতি বছরের অক্টোবর-নভেম্বরে অনুষ্ঠিতব্য নির্বাচনে লড়াইয়ে নামলে এবং নির্বাচন স্বাধীন ও নিরপেক্ষ হলে তারা বিশাল ব্যবধানে জয় পাবে।

দলের জ্যেষ্ঠ নেতাদের সামনে সু চি বলেছেন, ‘নির্বাচনে আমরা লড়ব কি না শিগগিরই সে সিদ্ধান্ত নেবে এনএলডি।’

শান্তিতে নোবেলজয়ী এই রাজনীতিক আরও বলেন, ‘সিদ্ধান্ত নেওয়ার পর আমরা ঠিক করব, কারা কারা প্রার্থীতা করবেন।’

সর্বশেষ, ১৯৯০ সালে জাতীয় নির্বাচনে লড়েছিল এনএলডি। সেবার বিপুল ভোটে জয় পেয়েছিল সু চির দলটি। কিন্তু তাদেরকে সরকার গঠন করতে দেওয়া হয়নি।

এমনকি নতুন এক আইনে সু চিকে প্রেসিডেন্ট পদে লড়াই করা থেকেও বিরত রাখা হয়েছে।

ওই আইন অনুযায়ী স্বামী-স্ত্রী কিংবা সন্তান- যে কেউ বিদেশী নাগরিক হলে মিয়ানমারের প্রেসিডেন্ট পদে দাঁড়ানোর অযোগ্য বলে বিবেচিত হবেন যে কোনো প্রার্থী।

সু চির দুই ছেলে ব্রিটিশ নাগরিক।