মেইন ম্যেনু

নিষিদ্ধ হতে পারে ডা. জাকির নায়েকের ‘ইসলামিক রিসার্চ ফাউন্ডেশন’

সন্ত্রাসমূলক কাজে ইন্ধন দেওয়ার অভিযোগে ভারতে নিষিদ্ধ হতে পারে বিতর্কিত ইসালামী বক্তা জাকির নায়েকের সংগঠন ইসলামিক রিসার্চ ফাউন্ডেশন (আইআরএফ)। বেআইনি কার্যক্রম আইনের আওতায় জাকিরের ওই সংস্থাটিকে নিষিদ্ধ করা যেতে পারে বলে ভারতের স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়কে জানিয়েছে দেশটির আইন মন্ত্রণালয়। সন্ত্রাসমূলক কাজকর্মে ইন্ধন দেওয়ার অভিযোগে বেশ কিছুদিন ধরেই জাকিরের সংস্থা ইসলামিক রিসার্চ ফাউন্ডেশনের ওপর নজর রাখছিল গোয়েন্দা সংস্থাগুলি।

গত ১ জুলাই ঢাকার গুলশন হামলার পরই জাকির নায়েকের নাম উঠে আসে। জানা যায় হামলায় যুক্ত দুই জঙ্গি জাকিরের ভাষণে উদ্বুদ্ধ হয়েছিল। সেই অভিযোগের ভিত্তিতেই মুম্বাইয়ে অবস্থিত তাঁর সংস্থা ইসলামিক রিসার্চ ফাউন্ডেশনের দফতরে অভিযান চালানো হয়েছিল। খতিয়ে দেখা হয় তাঁর পিস টিভিতে সম্প্রচারিত বিভিন্ন অনুষ্ঠানের ভিডিও। পরে অবশ্য মুম্বাইয়ের দফতরে সিল গালা করে পুলিশ। এরপর থেকে দিন যত এগিয়েছে জাকিরের বিরুদ্ধে একের পর এক অভিযোগ জমা পড়তে শুরু করেছে।

প্রসঙ্গত, ১৯৯১ সালে সংস্থাটি গড়েছিলেন এই ইসলাম ধর্ম বিশ্লেষক। কিন্তু ধর্ম বিশ্লেষণের আড়ালে জঙ্গি সংগঠন ইসলামিক স্টেট (আইএস)-এর সঙ্গে জাকিরের সংগঠনটি জড়িয়ে পড়ে বলে অভিযোগ। তাদের মাধ্যমেই বেশ কয়েকজন যুবক আইএস-এ যোগ দিয়েছে বলেও জানা যায়।

এর আগে ২০০৫ ও ২০১২ সালেও তাঁর বিরুদ্ধে অভিযোগ উঠেছিল। সেইসময় তাঁর বিরুদ্ধে দায়ে করা এফআইআরের ভিত্তিতে সবকিছু খতিয়ে দেখে তাঁর সংস্থাকে নিষিদ্ধ ঘোষণা করার সপক্ষে কেন্দ্র সরকারের কাছে আর্জি জানিয়েছে আইন মন্ত্রণালয়।

আইন মন্ত্রালয়ের আর্জি কেন্দ্রীয় সরকারের আনলফুল অ্যাক্টিভিটিস প্রিভেনশন অ্যাক্ট (ইউএপিএ)-এর অধীনে জাকিরের সংগঠনটিকে ‘বেআইনি’ বলে ঘোষণা করা হোক।

ঢাকার হামলার পর ইতোমধ্যেই জাকিরের পিস টিভি সম্প্রচার বন্ধ করেছে বাংলাদেশ সরকার। শুধু তাই নয় পিস নামে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান বন্ধ করা হয়েছে। যদিও সৌদি আরব থেকে ভিডিও সাক্ষাৎকারে বারবারই নিজেকে নির্দোষ বলে দাবি করেছেন জাকির নায়েক। বিডি-প্রতিদিন