মেইন ম্যেনু

নীলছবি দেখলে সুন্দরীদের অঙ্ক পরীক্ষা কেনও ভালো হয়?

পর্নোগ্রাফিতে মহিলাদের আগ্রহ বেশি। সম্প্রতি এক অনলাইন সমীক্ষায় এমনই তথ্য উঠে এসেছে৷পর্নোগ্রাফিতে নারীদের এই আসক্তি বাড়ার কারণ কি কিংবা অন্য বিনোদনের চেয়ে মহিলাদের মধ্যে নীল ছবি দেখার প্রবণতা কেন বেশি? গবেষণায় তা নিয়ে বেশ কিছু চমকপ্রদ তথ্য উঠে এসেছে। এক জনপ্রিয় ব্রিটিশ সেক্স টয় প্রস্তুতকারক সংস্থা এই সমীক্ষা চালিয়েছে।

সমীক্ষায় বলা হয়েছে, শতকরা আট ভাগ মহিলা অনলাইনে পর্নোগ্রাফি দেখেন এবং তারা বেশিরভাগ ক্ষেত্রেই একা একা দেখতে পছ্ন্দ করেন। দেখা গিয়েছে, বেশিরভাগ মহিলারা পর্নোগ্রাফি দেখলেও স্বীকার করেন না। যারা স্বীকার করেছেন, তাদের সংখ্যাটা নেহাতই কম। মাত্র ৩০০ জন মহিলা পর্নোগ্রাফি নিয়ে খোলামেলা আলোচনা করেন। ওই মহিলারা জানিয়েছেন, তারা কেন পর্নোগ্রাফি ভালোবাসেন এবং উপভোগ করেন। এমন পাঁচটি কারণ হল-

১. যেসব দম্পতি বা জুটি সপ্তাহে একদিন পর্নোগ্রাফি দেখেন তারা তুলনামূলক বেশি সুখী হন। শতকরা ৫৮ শতাংশ নারী তাঁর সঙ্গীর সঙ্গে এই ধরনের ছবি দেখতে পছন্দ করেন এবং দেখার পরে তারা এও বলেছেন যে পর্ন দেখার ফলে তাদের সম্পর্ক আগের চেয়ে ভালো হয়েছে। সঙ্গীর সঙ্গে শয্যায় যাওয়ার আত্মবিশ্বাসও বাড়িয়ে দেয় প্রাপ্তবয়স্কদের ছবি।

২. যারা নীল ছবি দেখেন, সেই সব নারীরা মনে করেন দেখার পরেও তারা সঙ্গীর সঙ্গে প্রতারণা করে না। বিশ্বাসভঙ্গের কোনও কাজেই নাকি আগ্রহ বাড়ায় না পর্ন।

৩. পর্ন দেখতে আগ্রহী বেশিরভাগ নারীরা মনে করে এই ছবি দেখলে তাদের মধ্যে হতাশা কাজ করে না। ২৩ শতাংশ নারী মনে করে পর্ন তাদের মনকে চাঙ্গা করে। রিপোর্টে বলা হয়েছে, যারা পর্নোগ্রাফি দেখেন তাদের শতকরা ৫০ শতাংশের পরের দিন অঙ্ক পরীক্ষা ভালো হয়।

৪. প্রায় ৪০ শতাংশ নারী পর্নোগ্রাফি দেখে তাদের বর্তমান সঙ্গীর প্রতির অতিরিক্ত টান অনুভব করেন। এতেই তারা বেশি আনন্দ পায়।

৫. তবে ৫৭ শতাংশ নারীরা একা পর্নোগ্রাফি উপভোগ করতে পছ্ন্দ করেন। এক্ষেত্রে যাদের বয়স ১৮ থেকে ২৪ তারা এগিয়ে রয়েছেন।