মেইন ম্যেনু

নীলফামারীর ডিমলায় স্বাধীনতা শিক্ষক পরিষদের সমাবেশ অনুষ্ঠিত

হামিদা আক্তার বারী,ডিমলা (নীলফামারী) থেকে: আজ সোমবার ১৪ মার্চ সকালে বর্তমান সরকারের শিক্ষা বান্ধব বিভিন্ন উন্নয়ন, উদ্যোগ ও ভূমিকার কারনে গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকারের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে অভিনন্দন জানাতে নীলফামারীর ডিমলা উপজেলার বাংলাদেশ স্বাধীনতা শিক্ষক পরিষদের আয়োজনে এক বিশাল শিক্ষক সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়েছে।

নীলফামারী-১ (ডোমার-ডিমলা) আসনের সাংসদ এর বাস ভবনে এ বিশাল শিক্ষক সমাবেশে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন সাংসদ বীর মুক্তিযোদ্ধা আফতাব উদ্দিনের সরকার। বিশেষ অতিথি ছিলেন ডিমলা উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান বীর মুক্তিযোদ্ধা তবিবুল ইসলাম।

বাংলাদেশ স্বাধীনতা শিক্ষক পরিষদের আহবায়ক প্রভাষক আশফাকারুল হক পিনো এর সভাপতিত্বে ও প্রভাষক অমীয় ব্যানার্জীর সঞ্চালনায় আলোচনা সভায় বক্তব্য রাখেন স্বাধীনতা শিক্ষক পরিষদের নীলফামারীর জেলা আহবায়ক খোকারাম বাবু,মাধ্যমিক শিক্ষা অফিসার আহসান হাবিব, মহিলা মহাবিদ্যালয়ে অধ্যক্ষ মো: মোকলেছার রহমান,ডিমলা ইসলামিয়া ডিগ্রী মহাবিদ্যালয়ের অধ্যক্ষ হাসিম হায়দার অপু,অধ্যক্ষ আব্দুল কাদের (বিএমআই),প্রধান শিক্ষক আক্তার হাবিব, শেখ ফজিলাতুননেছা মজিব বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়, আদাবাড়ী উচ্চ বিদ্যালয়ের সহাকারী শিক্ষক শফিকুল ইসলাম স্বপন বিএসসি ও প্রমূখ।

আলোচনা সভায় বক্তব্যে বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের প্রধানগন বলেন,বর্তমান সরকার শিক্ষাবান্ধব সরকার। আমরা মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর ডিজিটাল বাংরাদেশ আজ স্বপ্ন নয় বাস্তবে রুপ নিয়েছে। বর্তমান সরকারের ভিশন ২০২১ আজ বাস্তবের দ্বার প্রান্তে। শিক্ষার মান উন্নয়ন থেকে যাবতীয় উন্নয়ন বর্তমান সরকারের বলিষ্ঠ নেতৃত্বেই সম্ভব হয়েছে বলেও শিক্ষক প্রতিনিধিরা উল্লেখ করেন।

তারা বলেন, প্রাথমিক শিক্ষার মান উন্নয়নে এ সরকার প্রায় ২ লাখ শিক্ষা প্রতিষ্ঠান জাতীয় করণ করেছে। সরকার প্রতিটি জেলা ও উপজেলায় অন্তত ১টি করে মাধ্যমিক ও উচ্চ মাধ্যমিক শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে সরকারী করণের উদ্যোগ নিয়েছে। ইতিমধ্যে বেশ কিছু শিক্ষা প্রতিষ্ঠানকে জাতীয় করনের ঘোষনাও দেয়া হয়েছে। তাই আসুন,বর্তমান সরকারের ভূয়সী প্রদক্ষেপগুলি বাস্তবে রুপ দানের জন্য আমরা সকলে মিলে সহযোগীতার হাত বাড়িয়ে দিয়ে মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার হাতকে শক্তিশালী করি।

উল্লেখ্য,আলোচনা সভার পূর্বে শিক্ষক পরিষদের আয়োজনে মাধ্যমিক ও উচ্চ মাধ্যমিক পর্যায়ের উপজেলার সকল শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের শিক্ষক/শিক্ষিকাবৃন্দ শহরের প্রধান প্রধান সড়কে একটি বনার্ঢ্য র‌্যালি বের করেন।