মেইন ম্যেনু

নূর হোসেনের প্রার্থী জয়ী

কঠোর নিরাপত্তার মধ্য দিয়ে নারায়ণগঞ্জ সিটি করপোরেশনের চার নম্বর ওয়ার্ডের উপনির্বাচন অনুষ্ঠিত হয়েছে। নির্বাচনে লাটিম প্রতীক নিয়ে আরিফুল হক হাসান বে-সরকারিভাবে নির্বাচিত হয়েছেন, যিনি নূর হোসেনের প্রার্থী বলে নূর হোসেন জানিয়েছিলেন।

আরিফুর হক ৩,৩৩৭ ভোট পেয়ে বেসরকারিভাবে নির্বাচিত হয়েছেন। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী আমির হোসাইন ভান্ডারি ঠেলাগাড়ি প্রতীকে পেয়েছেন ২,৩৯৭ ভোট। এছাড়া ঘুড়ি প্রতীক নিয়ে নজরুল ইসলাম পেয়েছেন ২,২৯৫ ভোট।

রবিবার সকাল ৮টা থেকে ভোটগ্রহণ শুরু হয়ে চলে বিকাল ৪টা পর্যন্ত। সকালে দিকে ভোটার উপস্থিতি কিছুটা কম থাকলেও বেলা বাড়ার সঙ্গে সঙ্গে উপস্থিতি বাড়তে থাকে। বিশেষ করে শিমরাইল দারুছুন্নাত নেছারিয়া আমিল মাদ্রসায় নারী ভোটারের র্দীঘ লাইন ছিল চোখে পড়ার মতো।

পাঁচটি কেন্দ্রের প্রতিটি কেন্দ্রে এক ম্যাজিস্ট্রেটের নেতৃত্বে আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর কঠোর প্রহরা ছিল। টহলে ছিল র‌্যাব ও বিজিবি সদস্য।

এ ওয়ার্ডে মোট ভোটার সংখ্যা ১৪,১০৬। এর মধ্যে পুরুষ ভোটার ৭,১৮১ জন আর মহিলা ভোটার ৬,২২৫ জন।

পাঁচটি কেন্দ্রের ৩৭টি বুথে ভোট গ্রহণ অনুষ্ঠিত হয়। মোট ভোট পড়েছে ৫৭.৯৮ শতাংশ।

উপ-নির্বাচনে প্রার্থীরা ছিলেন- কেন্দ্রীয় ওলামা লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক আমির হোসেন ভান্ডারী (ঠেলাগাড়ি), সিদ্ধিরগঞ্জ ইউনিয়ন যুবলীগের সভাপতি নজরুল ইসলাম (ঘুড়ি), জাতীয় শ্রমিক লীগের সাবেক সভাপতি আবদুল মতিন মাস্টারের ছেলে আরিফুল হক হাসান (লাটিম), ব্যবসায়ী আব্দুল আজিজ (ব্যাডমিন্টন) ও রাসেল (টিফিন ক্যারিয়ার)।

নির্বাচনের রিটার্নিং কর্মকর্তা ও জেলা নির্বাচন অফিসার মো. তারিফুজ্জামান জানান, শান্তিপূর্ণ পরিবেশেই নির্বাচন সম্পন্ন হয়েছে।