মেইন ম্যেনু

নেইমারের প্রতিশোধ

ব্রাজিলিয়ানদের স্বপ্নটা তো ভেঙে দিয়েছিল কলম্বিয়ানরা। ঘরের মাঠে অনুষ্ঠিত ২০১৪ বিশ্বকাপের কোয়ার্টার ফাইনালে জুনিগার মারাত্মক ট্যাকলে বিশ্বকাপই শেষ হয়ে গিয়েছিল নেইমারের।

স্ট্রেচারে করে নেইমার যখন মাঠ থেকে বের হচ্ছিলেন, তার চোখে ছিল পানি। সেই পানি না শুকিয়ে সাগর হয়ে গিয়েছিল গত বছর কোপা আমেরিকায়। এই কলম্বিয়ার কাছে হেরে কোপা থেকে বিদায় নিয়েছিল সেলেকাওরা।

ওই ম্যাচে লাল কার্ড দেখে চার ম্যাচের জন্য নিষিদ্ধ হয়েছিলেন বার্সেলোনার সুপার স্টার। কলম্বিয়ার বিপক্ষে দুঃসহ স্মৃতি কিছুটা হলেও ভুলে গিয়েছিলেন অলিম্পিকে গোল করে। কিন্তু সেটা তো আর জাতীয় দল ছিল না।

তাই অতীতের সেই জ্বালা নিবারণের জন্য ঘরের মাঠে বিশ্বকাপ বাছাইয়ে কলম্বিয়াকে পেয়ে যান নেইমার। তার গোলেই যে মানাসে হেসেছে ব্রাজিলিয়ানরা। ২-১ গোলে জিতে লাতিন আমেরিকা অঞ্চলে পয়েন্ট টেবিলে দুই নম্বরে ওঠার সঙ্গে প্রতিশোধও নিয়ে নিল নেইমারের ব্রাজিল।

ম্যাচে গোল হয়েছে তিনটি; সবই করেছে ব্রাজিল। তবুও যে জয়টা ঘাম ঝরিয়ে পেয়েছে ব্রাজিল। কারণ শুরুতে নেইমারের কর্নার থেকে হেডে মিরান্ডার গোলে এগিয়ে যাওয়া সেলেকাওরা পয়েন্ট হারানোর শঙ্কায় ছিল।

৩৬ মিনিটে নিজেদের জালেই বল পাঠিয়ে দেন মারকুইনহোস। এর পরই সব আলো নিজের দিকে নিয়ে আসেন নেইমার। ৭৪ মিনিটে ফিলিপে কৌতিনহোর বাড়িয়ে দেওয়া বলে নিখুঁত ফিনিশিংয়ে ব্রাজিল শিবিরে স্বস্তি ফেরান নেইমার। আর এই গোল করেই জিকোর পাশে নাম বসিয়েছেন তিনি। দু’জনেরই গোল এখন ৪৮।