মেইন ম্যেনু

‘নেতা টাকা দেয়নি, তাই পায়ে হেঁটেই বাসায় যাচ্ছি’

এদের রাজনীতি সম্পর্কে স্পষ্ট কোনো ধারণা বা দর্শন নেই। এদের দরকার সামান্য ক’টি টাকা। পেটের দায়েই এরা সামিল হয় বিভিন্ন মিছিল-মিটিংয়ে। কিন্তু তাতেই কি, শেষ পর্যন্ত সেই টাকা নিয়েও এদের সঙ্গে প্রতারণা করা হয়।

উপায়ান্তর না দেখে- বিষণ্ন বদনে ঘরে ফেরা ছাড়া এদের তখন কিছুই করার থাকে না। বলছি, খেটে খাওয়া সমাজের ছিন্নমূল শিশুদের কথা।

রাজনীতিতে বিভিন্ন রাজনৈতিক সভা-সমাবেশে শিশুদের ব্যবহার করা হয় অনেক আগে থেকেই। এ নিয়ে অনেক সমালোচনা থাকলেও প্রায় বিভিন্ন রাজনৈতিক সমাবেশে প্রাপ্তবয়স্কদের পাশাপাশি এদেরও দেখা যায়।

১৩ জুলাই বুধবার বিকেলে রাজধানীর কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারে সন্ত্রাসবাদ ও জঙ্গিবাদের বিরুদ্ধে ঢাকা মহানগর যুবলীগ দক্ষিণ আয়োজিত যুব সমাবেশেও এরকম চিত্র চোখে পড়ে।

রাজধানীর যাত্রাবাডী ৪১ নং ওয়ার্ড থেকে সমাবেশে এসেছিলেন সায়েম, বাবু, নজরুল, রহিম, সাখাওয়াত। আসার সময় ওয়ার্ডের নেতা গাড়িতে করে আনলেও যাওয়ার সময় তাদেরকে পায়ে হেঁটে যেতে হচ্ছে যাত্রাবাড়ী। কারণ তাদের কাছে ভাড়ার টাকা নেই।

সমাবেশে আসার সময় তাদেরকে একশ’ টাকা করে দেয়া হবে বললেও দেয়া হয়নি। তাই পায়ে হেঁটেই যাত্রাবাড়ীল উদ্দেশে যাত্রা করলেন এইসব শিশুরা। তবে তাদের আশা রাতে নেতা তাদেরকে টাকা দিবে।

এদেরই একজন নজরুল বলে, ‘আমরা কেউ লেখাপড়া করি না। গাড়িতে কাজ করি। ঈদের পর এখন কোন কাজ নেই। তাই সমাবেশে আসছি। একশ টাকা পেলে রাতে ভালো করে খেতে পারবো।’

বাবু নামে আরেক শিশু বলে, ‘আসার সময় গাড়িতে করে এসেছি। সভায় আসার পর আর নেতার দেখা পাইনি। আমাদের প্রত্যেককে টাকা দেয়ার কথা। পকেটে কোনো টাকা নাই। নেতাও টাকা দেয়নি, তাই পায়ে হেঁটেই যাত্রাবাড়ী যাচ্ছি।’-বাংলামেইল