মেইন ম্যেনু

নৈশ বিদ্যালয় থেকে উধাও ‘নৈশ’, ক্ষোভ

সিলেটের ঐতিহ্যবাহী বিদ্যাপীঠ ভোলানন্দ নৈশ উচ্চ বিদ্যালয়ের নতুন ভবনের উদ্বোধন করেছেন অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আবদুল মুহিত। তবে উদ্বোধনী ফলকে ‘নৈশ’ শব্দটি বাদ পড়েছে। এ জন্য ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন বিদ্যালয়ের বর্তমান ও প্রাক্তন শিক্ষার্থীরা।

জানা গেছে, শুক্রবার সকাল ১১টায় ভোলানন্দ নৈশ উচ্চ বিদ্যালয়ের নবনির্মিত চার তলা ভবন উদ্বোধন করেন অর্থমন্ত্রী। এর আগে মন্ত্রীকে ফুল দিয়ে স্বাগত জানান ২০০৬-২০১৫ সালের এসএসসি উত্তীর্ণ শিক্ষার্থীরা।

ফলক থেকে ‘নৈশ’ শব্দটি বাদ পড়ায় ক্ষুব্ধ প্রাক্তন ও বর্তমান শিক্ষার্থীরা অভিযোগ করেন- সুবিধা বঞ্চিত শিশুদের লেখাপড়ার সুযোগ করে দিতে ‘ভোলানন্দ নৈশ উচ্চ বিদ্যালয়’ দান ও প্রতিষ্ঠা করা হয়েছিল। তখন থেকে রাত্রিকালীন শিক্ষাদান চলে আসছে এবং সুবিধা বঞ্চিত শিশুরা দিনের কাজ শেষে রাতে গিয়ে পাঠ গ্রহণ করছে। পরবর্তীতে সিলেট সিটি করপোরেশন এর ব্যয়ভার বহন করে আসছে। কিন্তু বিদ্যালয়ের নবনির্মিত চার তলা ভবনের উদ্বোধনী ফলকে বিদ্যালয়ের নাম থেকে ‘নৈশ’ শব্দটি বাদ দিয়ে ‘ভোলানন্দ উচ্চ বিদ্যালয়’ লেখা হয়েছে।

এতে শিক্ষার্থীরা ক্ষোভ প্রকাশ করে করেছেন এবং ফলকটি পুণঃস্থাপনের জন্য জোর দাবি জানিয়েছেন।

বিদ্যালয়টির প্রাক্তন শিক্ষার্থী সুলাইমান আহমদ সুহেল বলেন, ‘আমরা এই স্কুল থেকে লেখাপড়া করেছি। কিন্তু বিদ্যালয়ের নবনির্মিত চার তলা ভবনের উদ্বোধনী ফলকে বিদ্যালয়ের নাম থেকে ‘নৈশ’ শব্দটি বাদ দেয়া হয়েছে। এটা অত্যন্ত দুঃখজনক।’

ফলকটিতে নাম শুদ্ধ করে পুণঃস্থাপনের দাবি জানান তিনি।

এ ব্যাপারে বিদ্যালয় কর্তৃপক্ষের সঙ্গে যোগাযোগ করা হলেও তাদের কোনো বক্তব্য পাওয়া যায়নি।