মেইন ম্যেনু

নোয়াখালীর স্কুলছাত্রী নির্যাতনের ঘটনায় অভিযুক্ত চেয়ারম্যানের শাস্তির দাবিতে মানববন্ধন

এম.এ আয়াত উল্যা, স্টাফ রিপোর্টার, নোয়াখালী : নোয়াখালীর চরবাটা ইউনিয়নে সালিশের নামে স্কুলছাত্রীকে বাড়ি থেকে তুলে এনে নির্যাতনকারী চেয়ারম্যান মোজাম্মেল হোসেনের শাস্তির দাবিতে মানববন্ধন করা হয়েছে। রোববার সকালে নোয়াখালী প্রেসক্লাবের সামনে নারী নির্যাতন প্রতিরোধ কমিটির ব্যানারে আয়োজিত এই মানববন্ধনে বিভিন্ন শ্রেণী পেশার প্রতিনিধিরা অংশগ্রহণ করেন।

এ সময় সমাবেশে বক্তারা জানান, গত সোমবার রাতে চরবাটা ইউনিয়নের চেয়ারম্যান মোজাম্মেল হোসেনের উপস্থিতিতে সালিশে মধ্য চরবাটা গ্রামের দিনমজুর হানিফ ও তার স্ত্রী ও শালিকাকে বেত মেরে আহত করা হয়। এক পর্যায়ে চৌকিদার দিয়ে বাড়ি থেকে তাদের স্কুল পড়–য়া মেয়েকে তুলে এনে সালিশে বেত মারা হয়। এতে ঘটনাস্থলে ছাত্রীটি জ্ঞান হারিয়ে ফেলে। পরে তাকে উদ্ধার করে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। বর্তমানে সে নোয়াখালী জেনালে হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছে। চরবাটা বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের দশম শ্রেণীর ছাত্রী সে।

Noakhali News 28-08-2016. (2)

সমাবেশে বক্তারা বলেন, সুবর্ণচর উপজেলায় দিনদিন মানবাধিকার লঙ্ঘনের ঘটনা বেড়েই চলছে। রাজনৈতিক ছত্রছায়ায় এ জাতীয় ঘটনানো হচ্ছে। রাত নয়টার সময় একটি কিশোরীকে বাড়ি থেকে তুলে এনে পেটানোর ঘটনা বর্বরতার সামিল। এনিয়ে গণমাধ্যমে সংবাদ এবং প্রতিবাদ হলেও অভিযুক্ত চেয়ারম্যান তার ফেসবুক পোস্টে এই কাজের দায় স্বীকার করে আগামিতে করবেন বলে দম্ভ্য প্রকাশ করেন। মানববন্ধনে বক্তরা চরাবাটা ইউপি চেয়ারম্যান মোজাম্মেল হোসেন কর্তৃক কিশোরী স্কুলছাত্রীর ওপর নির্মম নির্যাতনের ঘটনার সুষ্ঠ তদন্ত সাপেক্ষে দোষীদের বিচার দাবি করেন এবং দোষী চেয়ারম্যানের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা না নেওয়া পর্যন্ত তাদের আন্দোলন অব্যাহত থাকবে বলে জানান।

সংহতি বক্তব্য রাখেন নোয়াখালী নাগরিক মোর্চার যুগ্ম-আহবায়ক আনম জাহের উদ্দিন, পারিবারিক নির্যাতন জোট নোয়াখালী সভাপতি অ্যাড. গোলাম আকবর, মহিলা আইনজীবী পরিষদ নেত্রী অ্যাড. কল্পনা রাণী দাশ, এডাব নোয়াখালী জেলা কমিটি সম্পাদক আবদুল আউয়াল, বাসদ (মাহবুব) কেন্দ্রিয় কমিটি সদস্য অ্যাড. শ্যামল দে, নোয়াখালী প্রেসক্লাবের ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক জামাল হোসেন বিষাদ, ঘরনীর নির্বাহী পরিচালক পপি রহমান ও সুশাসনের জন্য প্রচারাভিযান (সুপ্র) সম্পাদক নুরুল আলম মাসুদ প্রমুখ।