মেইন ম্যেনু

পদ পেয়েও বিএনপি কার্যালয়ে ছাত্রদল নেতাদের হামলা!

৭৩৬ সদস্যের কেন্দ্রীয় কমিটি ঘোষণার একদিনের মাথায় নয়াপল্টনে বিএনপির কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে ভাঙচুর চালিয়েছেন ছাত্রদলের নেতাকর্মীরা। হামলায় নেতৃত্বদানকারীরা পূর্ণাঙ্গ কমিটির শীর্ষ পদে আছেন বলে জানা গেছে। তাদের অভিযোগ, স্বজনপ্রীতি ও এলাকাপ্রীতির মাধ্যমে তাদের যথাযথ মূল্যায়ন করা হয়নি।

আজ সোমবার বিকাল চারটার দিকে পল্টন থানার সামনে থেকে একটি মিছিল নিয়ে এসে অতর্কিত এ হামলা চালায় বলে প্রতক্ষদর্শীরা জানিয়েছেন। এ সময় কার্যালয়ের সামনে থাকা তিনটি মোটরসাইকেলে আগুন ধরিয়ে দেন ছাত্রদল কর্মীরা। পরে তারা বিএনপির কেন্দ্রীয় অফিসের নিচ তলায় দলের সামগ্রী ও বিক্রয়কেন্দ্র ভাঙচুর করেন। এক পর্যায়ে চারতলায় ছাত্রদলের কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে গিয়েও ভাঙচুর এবং আগুন ধরিয়ে দেন নেতাকর্মীরা। তবে তাৎক্ষণিকভাবে আগুন নিভিয়ে ফেলায় ক্ষয়ক্ষতি হয়নি।

ছাত্রদলের সহ-সভাপতি রাকিবুল ইসলাম রয়েলের নেতৃত্বে এ বিক্ষোভ চলে বলে জানিয়েছেন প্রত্যক্ষদর্শীরা। এ সময় বিক্ষোভকারীরা ‘এলাকা প্রীতি অর্থ-বাণিজ্য ও পকেট কমিটি মানি না মানবো না’ বলে স্লোগান দেন।

রকিবুল ইসলাম রয়েল হামলার কথা স্বীকার করে বলেন, “শুধু আমার কথা কেন বলবেন, ছাত্রদলের সাংগঠনিক সম্পাদক ইসহাক সরকার, হুমায়ুন কবির রওশনদের কথা বলেন। ছাত্রদলকে যে চক্করের মধ্যে ফেলানো হয়েছে আগামী ৪০ বছরেও এখান থেকে উঠতে পারবে না।”

মোটরসাইকেলে আগুন দেয়ার ঘটনা ঘটেছে কি না এমন প্রশ্নে তিনি বলেন, “অনেক কিছু হয়েছে। ঘটনাস্থলে গিয়ে দেখতে পারেন।”

পুলিশ ঘটনাস্থলে এসে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণের চেষ্টা চালাচ্ছে। তিনটি মোটরসাইকেলে দেয়া আগুন নেভানোর জন্য ফায়ার সার্ভিসের দুটি ইউনিট কাজ করছে।