মেইন ম্যেনু

পনির ব্যবহারে এই ৭টি ভুল এড়িয়ে চলুন

হালকা নাস্তায় বা ভারি খাবারের সঙ্গে পনির ব্যবহারের চল রয়েছে বিভিন্ন দেশে। তবে এ পনির ব্যবহারের পদ্ধতিগুলো আমরা অনেকেই সঠিকভাবে জানি না। এক প্রতিবেদনে বিষয়টি প্রকাশ করেছে বিজনেস ইনসাইডার।

১। প্লাস্টিক র‌্যাপ দিয়ে মোড়া
পনির কেনার সময় তা প্লাস্টিক র‌্যাপ দিয়ে মোড়া থাকলেও এভাবে রাখা উচিত নয়। এগুলো অমসৃণ কাগজ দিয়ে মুড়িয়ে সংরক্ষণ করাই উত্তম। কারণ আবদ্ধ করে রাখলে এতে অনাকাঙ্ক্ষিত ব্যাকটেরিয়া জন্মাতে পারে।

২। ছত্রাক জন্মালেই বাদ
পনিরের গায়ে সামান্য ছত্রাক জন্মালেই তা যে বাতিল করতে হবে, এমন কোনো কথা নেই। সাধারণ পনিরের ক্ষেত্রে ছত্রাক জন্মানো অংশটি বাদ দিলেই চলে। ইটালিয়ান রিকোটা পনিরের ক্ষেত্রে অবশ্য পুরোটাই ফেলে দেওয়া উচিত।

৩। দুধ খাওয়া বারণ মানে পনির গ্রহণও নিষেধ
স্বাস্থ্যগত কারণে দুধ খাওয়া নিষেধ থাকলে অনেকেই পনির খাওয়াও বাদ দেন। সাধারণত এটি প্রয়োজন হয় না। অর্থাৎ দুধ খাওয়া নিষেধ থাকলেও সাধারণত পনির খাওয়া যায়।

৪। ফ্রিজ থেকে সরাসরি প্লেটে
পনির ফ্রিজে রাখলেও তা খাওয়ার আগে স্বাভাবিক তাপমাত্রায় নিয়ে নেওয়া উচিত। অন্যথায় তার সঠিক স্বাদ পাওয়া যায় না।

৫। ফ্রিজ অত্যাবশ্যকীয় নয়
অনেকেই পনির কিনে তাকে ফ্রিজে না রাখা পর্যন্ত শান্তি পান না। যদিও পনির ফ্রিজে রাখা অত্যাবশ্যকীয় নয়। ফ্রিজ আবিষ্কারের বহু আগে থেকেই মানুষ পনির ব্যবহার করে। ফ্রিজের বাইরে তা বেশ কয়েক সপ্তাহ ভালো থাকে। তবে ফ্রিজে রাখলে তা বাইরের তুলনায় বেশিদিন ভালো থাকবে বলে আশা করা হয়।

৬। সব পনিরের একই আয়ু
অনেক ধরনের পনির রয়েছে। আর প্রত্যেক পনিরেরই রয়েছে ভিন্ন ভিন্ন আয়ু। এগুলো ব্যবহারের নিয়মও আলাদা।

৭। সব পনিরকেই এক মনে করা
বাজারে বহু ধরনের পনির পাওয়া যায়। এগুলোর স্বাদও ভিন্ন ভিন্ন হয়। কোনো একটি স্বাদ পছন্দ না হলে ভিন্ন কোনো পনিরের স্বাদ পরীক্ষা করে দেখতে পারেন।