মেইন ম্যেনু

পবিত্র জুমাতুল বিদা আজ

জুমাতুল বিদা ১৭ জুলাই শুক্রবার। মাহে রমজানের শেষ জুমা। এদিন আল কুদস দিবসও। মুসলমানদের প্রথম কেবলা বায়তুল মুকাদ্দাস দীর্ঘদিন ধরে ইহুদিদের দখলে রয়েছে। এই পবিত্র মসজিদকে মুক্ত করার দাবিতে রমজানের শেষ শুক্রবার বিশ্বব্যাপী পালিত হয় আল-কুদস দিবস।

রহমত, বরকত, মাগফিরাত ও নাজাতের মাস রমজানের শেষ জুমা অত্যন্ত গুরুত্ব সহকারে পালন করে থাকেন মুসলমানেরা। এমনিতেই সপ্তাহে জুমার দিন অত্যন্ত মর্যাদাপূর্ণ। তদুপরি রমজানের মাস হওয়ায় এবং রমজানের শেষ জুমা হওয়ায় এই দিনটিকে বিশেষ গুরুত্ব দেওয়া হয়। জুমাতুল বিদার দিন ধর্মপ্রাণ মুসল্লিরা প্রধান মসজিদ তথা বড় জামাতে শরিক হওয়ার চেষ্টা করেন। ফলে দেশের প্রধান মসজিদ বায়তুল মোকাররমসহ অন্যান্য মসজিদে মুসল্লিদের উপচেপড়া ভিড় লক্ষ্য করা যাবে। মসজিদ ছাড়িয়ে আশপাশের রাস্তায় মুসল্লিরা কাতারবন্দী হয়ে নামাজ আদায় করেন।

বায়তুল মুকাদ্দাস হচ্ছে ইসলামের প্রথম কিবলা এবং মক্কা মুআজজামাহ ও মদিনা মুনাওয়ারার পরে তৃতীয় পবিত্র স্থান। রাসূলে করিম [সা:] মক্কার মসজিদুল হারাম, মদিনার মসজিদুন্নব্বী ও বায়তুল মুকাদ্দাস মসজিদের উদ্দেশে সফরকে বিশেষভাবে সওয়াবের কাজ হিসেবে উল্লেখ করেছেন।

হিজরতের পর বায়তুল মুকাদ্দাস ইসলামের প্রথম কিবলা ছিল। বায়তুল মুকাদ্দাস দুনিয়ার জন্য অসংখ্য ভূখণ্ডের মতো কোনো সাধারণ ভূখণ্ড নয়। এ পবিত্র ঘর থেকেই খাতামুন্নাবীয়ীন হজরত মুহাম্মদ (সা:) মিরাজে গমন করেছিলেন।

বায়তুল মুকাদ্দাস মসজিদ এবং আশপাশের এলাকা বহু নবীর স্মৃতি বিজড়িত। এই পবিত্র নাম শুধু একটি স্থানের সাথে জড়িত নয় বরং এই নাম সব মুসলমানের ঈমান ও সংস্কৃতির অবিচ্ছেদ্য অঙ্গ। এখানে রয়েছে অসংখ্য নবী-রাসূলের রওজা মোবারক। ওহি অবতরণস্থল এবং নগরী, নবীগণের দ্বীন প্রচারের কেন্দ্রভূমি। তাই এ পবিত্র নগরীর প্রতি ভালোবাসা প্রতিটি মুমিনের হৃদয়ের গভীরে প্রোথিত।