মেইন ম্যেনু

পরকীয়ায় লিপ্ত স্বামী, উচিত শিক্ষা দিতে অদ্ভূত কাণ্ড ঘটালেন স্ত্রী!

সম্পর্কের টানাপোড়েনের মধ্যে বিবাহিত পুরুষ বা মহিলা অনেক সময়ই পরকীয়ায় জড়িয়ে পড়েন। এক সম্পর্কে থেকে পার্টনারের সঙ্গে বিশ্বাসঘাতকতা করলে অন্যের উপর নানা ধরনের প্রভাব পড়তে পারে। কখনও ঘটে বিচ্ছেদ তো কখনও শোকে কাতর হয়ে অনেকে আত্মহননের পথও বেছে নেন। কিন্তু কলোম্বিয়ার এক মহিলা যা করলেন, তা বিশ্বাস করা বেশ কঠিন।

২৮ বছরের সান্দ্রা মিলেনা আমেইদা জানতে পেরেছিলেন তার আড়ালে স্বামী অন্য এক মহিলার সঙ্গে সম্পর্কে জড়িয়ে পড়েছেন। আর তাই স্বামীকে উচিত শিক্ষা দিতে আজব এক কাণ্ড ঘটিয়ে বসলেন তিনি। স্বামীর পরকীয়ার কথা জানার পর সান্দ্রা ঠিক করে ফেলেন, স্বামীর জমানো সব অর্থ নিয়ে তাকে ছেড়ে পালিয়ে যাবেন। যেমন কথা তেমন কাজ।

স্বামীর গচ্ছিত ৭০০০ ডলার রাতারাতি গায়েব করে দেন তিনি। বাংলাদেশি মুদ্রায় যার অর্থ আনুমানিক সাড়ে ৫ লক্ষ টাকা। স্বামী বিষয়টি জানতে পেরেই সান্দ্রাকে আটকানোর চেষ্টা করেন। বলেন, তার গচ্ছিত অর্থের অর্ধেক ভাগ যেন তাকে ফিরিয়ে দেন তার স্ত্রী। কিন্তু তা আর কোনওভাবেই সম্ভব ছিল না। কারণ সেই অর্থ কোনও ব্যাঙ্ক অ্যাকাউন্টে বা বাড়ির গোপন লকারে লুকিয়ে রাখেননি সান্দ্রা। তিনি আসলে সব নোট গিলে ফেলেছিলেন।

হ্যাঁ, এমনই অদ্ভুত কাণ্ড ঘটিয়ে বেশ অসুস্থ হয়ে পড়েন তিনি। তাকে হাসপাতালেও ভর্তি করা হয়। সেখানেই এক্স-রে করে দেখা যায় শরীরের ভিতর ছড়িয়ে ছিটিয়ে পড়ে রয়েছে লক্ষ লক্ষ ডলারের প্যাকেট। যার ফলে তার পাকস্থলী ও ক্ষুদান্ত্রের মধ্যে একটি ব্লকেজ তৈরি হয়েছে। অস্ত্রোপচার করে তার পাকস্থলী থেকে ১০০ ডলার উদ্ধার করা সম্ভব হয়। পরে ৫৭০০ টাকাও কোনওক্রমে বের করেন চিকিৎসকরা। তবে বাকি টাকা মলমূত্রের সঙ্গে মিশে গিয়েছে। অবিশ্বাস্য এই ঘটনা চিকিৎসকদেরও অবাক করেছে।






মন্তব্য চালু নেই