মেইন ম্যেনু

পরাজয়ের বৃত্ত থেকে বেরোলো সিলেট

বিপিএলে অবশেষে পরাজয়েরর বৃত্ত থেকে বের হলো সিলেট সুপার স্টার্স। সোমবারের দ্বিতীয় ম্যাচে কুমিল্লা ভিক্টোরিয়ান্সের বিরুদ্ধে তারা জয় পেলো ৪ উইকেটে। এর আগে চার ম্যাচ খেলে চারটিতেই হেরেছিলো মুশফিকুর রহিমের দল।

সোমবার চট্টগ্রামের জহুর আহমেদ চৌধুরী স্টেডিয়ামে মাশরাফিদের দেয়া ১৬৫ রানের টার্গেটে ব্যাট করতে নেমে ১৯.৪ ওভারে ৬ উইকেট হারিয়ে জয়ের বন্দরে নোঙর করে সিলেট সুপার স্টার্স।

শেষ ওভারে মুশফিকদের প্রয়োজন ছিলো ৪ রান। তখন মাশরাফি বল তুলে দেন তরুণ পেসার আবু হায়দার রনির হাতে। প্রথম বলে সিঙ্গেল রান নেন শিহান জয়াসুরিয়া। দ্বিতীয় বলে তুলে মারতে গিয়ে ইমরুল কায়েসের হাতে ধরা পড়েন রবি বোপারা। পরের বলে বোল্ড হন জয়াসুরিয়া। চতুর্থ বলে নাজমুল হোসেন মিলন ছয় মেরে দলের জয় নিশ্চিত করেন।

এই ম্যাচে সিলেট সুপার স্টার্সের পক্ষে রবি বোপারা ৫০, মুশফিকুর রহিম ৪৭ ও দিলশান মুনাবিরা ৩৬ রান করেন। কুমিল্লার পক্ষে আবু হায়দার রনি ৪টি ও নুয়ান কুলাসেকারা ২টি করে উইকেট নেন।

এদিন ইনিংসের ষষ্ঠ ওভারে মমিনুল হককে সাজঘরে ফেরান আবু হায়দার রনি। অষ্টম ওভারে দিলশান মুনাবিরার উইকেটটিও নেন রনি। ১৭তম ওভারের শেষ বলে মুশফিকুর রহিমকে বোল্ড করেন নুয়ান কুলাসেকারা। ১৯তম ওভারে হাম্মাদ আজমকেও ফেরান শ্রীলঙ্কান এই পেসার। শেষ ওভারে রবি বোপারা ও শিহান জয়াসুরিয়াকে আউট করেন আবু হায়দার রনি।

চট্টগ্রামের জহুর আহমেদ চৌধুরী স্টেডিয়ামে এর আগে টস হেরে ব্যাট করতে নেমে নির্ধারিত ২০ ওভারে ৫ উইকেট হারিয়ে ১৬৪ রান সংগ্রহ কওে মাশরাফির দল কুমল্লিা ভিক্টোরিয়ান্স। দলের পক্ষে আসহার জাইদি ৫৩*, ইমরুল কায়েস ৪৮ ও লিটন দাস ৪২ রান করেন। সিলেটের পক্ষে চারটি উইকেট নিয়ে ম্যান অব দ্যা ম্যাচ নির্বাচিত হয়েছেন রবি বোপারা।