মেইন ম্যেনু

পর্ণ সিনেমার শুটিংয়ে চলাকালীন সময়ে হাজির মেয়ের বাবা!

পর্ণ সিনেমার শুটিং চলাকালীন সময়ে মেয়েকে মেরে বাড়ি নিয়ে গেছে এক বাবা। এমনি ঘটনা ঘটেছে যুক্তরাষ্ট্রের ফ্লোরিডায়। আর এই সব থেকে তাজ্জব বনে যায় ছবির পরিচালক। কি করবেন বুঝতে না পেরে হতাশ হয়ে সোশ্যাল মিডিয়ায় লেখেন, ” নায়িকাকে ওর বাবা বকে বাড়ি নিয়ে গেছে,কেউ যদি কাজ করতে চাও চলে এসো”।

জানা যায়, মেয়ের শখ পর্ণ নায়িকা হওয়া। সব কিছু লুকিয়ে লুকিয়ে ঠিকও করে ফেলেছিল। কিন্তু কথাটি সূত্র মারফত বাবার কানে ওঠে চলে যায়। শুনেই রেগে আগুন বাবা। কিন্তু টেরটি পেতে দেননি মেয়েকে। শুধু অপেক্ষা করলেন সঠিক সময়ে। আর মনে মনে সিদ্ধান্ত নিলেন হাতেনাতে ধরে মেয়েকে উচিত শিক্ষা দিবেন। যেমন ভাবা তেমনি কাজ।

যেদিন মেয়ে পর্ণ সিনেমার শুটিংয়ের করতে বাইরে গেলও,বাবা কাউকে কিছু না জানিয়ে গাড়ি নিয়ে বের হলেন। বিভিন্নভাবে খোঁজ নিয়ে জেনে নিলেন মেয়ে কোথায় গিয়েছে পর্ণের শুটিংয়ে। এরপর গাড়ি নিয়ে সোজা পর্ণের সেটে। গিয়ে দেখলেন প্রস্তুতি চলছে। মেয়ে তৈরি হচ্ছে পারফর্ম করতে। এরপর আর কী! চিৎকার-মেয়েকে মেরে কান ধরে গাড়িতে তুললেন তিনি।



« (পূর্বের সংবাদ)