মেইন ম্যেনু

পশুর আঁকা ছবি…

ভুল করবেন না- পশু আঁকা নয়, পশুর আঁকা ছবি নিলামে বিক্রির আয়োজন করছে অকল্যান্ড চিড়িয়াখানা কর্তৃপক্ষ।

দীর্ঘদিন ধরে পশুদের পাশে থেকে চিড়িয়াখানার কর্মীদের মনে হয় তাদেরও হয়তো কোনো সৃষ্টিশীল কিছু রয়েছে। পরীক্ষার জন্য তারা পশুদের পায়ে কিংবা মুখে ধরিয়ে দেয়া হয় রঙতুলি, মাটিতে রাখা হয় সাদা কাগজ।

হাতি তার শুঁড় দিয়ে তুলি ধরে আঁকাআঁকি করতে শুরু করে, জিরাফ তুলি ধরলো মুখে, আর ছাগল তার পাকে ব্যবহার করলো রঙতুলি হিসেবে। কিছুক্ষণের মধ্যেই সাদা ক্যানভাস হয়ে উঠে রঙিন। তাতেই প্রমাণ মেলে পশুদের সৃষ্টিশীলতা।

এবার পশুদের সেই সৃষ্টিশীলতা চিড়িয়খানার বাইরে ছড়িয়ে দিতেই অকল্যান্ড চিড়িয়াখানা কর্তৃপক্ষ আয়োজন করছে নিলামের। যেখানে মোট ৩২টি ছবির নিলাম হবে। নিলাম থেকে প্রাপ্ত সব অর্থই সমাজকল্যাণমূলক কাজে ব্যবহার করা হবে।

সেই ছবিদের বিষয়ে কর্তৃপক্ষ জানায়, ছবি আঁকতে কোনো পশুকেই জোর করা হয়নি। বরং রঙতুলি পেয়ে তারা মনের আনন্দেই ‘মনের ভাব’ প্রকাশ করেছে। যার ছবি আঁকতে ইচ্ছে হয়নি সে রঙতুলি ফেলে চলে গেছে বন্ধুদের সঙ্গে আড্ডা দিতে। তাকে কোনোভাবেই চাপ দেয়া হয়নি ছবি আঁকার জন্য।

পশুর আঁকা ছবি২

পশুর আঁকা ছবি৩

পশুর আঁকা ছবি৪

পশুর আঁকা ছবি৫পশুর আঁকা ছবি৬ পশুর আঁকা ছবি৭



« (পূর্বের সংবাদ)