মেইন ম্যেনু

পশ্চিমবঙ্গেই প্রথম রূপান্তরকামী বোর্ড

ভারতের মধ্যে পশ্চিমবঙ্গে সর্বপ্রথম রূপান্তরকামী বোর্ড গঠিত হয়েছে। শিশু, নারী ও সমাজকল্যাণ মন্ত্রী ডা: শশী পাঁজা বুধবার বিধানসভায় দাঁড়িয়ে এ কথা বলেন। শশী পাঁজা জানান, বিশ্বের সব সমাজেই রূপান্তরকামীরা এক নয়া দিগন্ত৷। সমাজে সর্বস্তরে তাঁরা স্বীকৃতি ও সম্মান দাবি করেন৷।

ডাঃ শশী আরও বলেন, কন্যাশ্রী প্রকল্প শুধু আমাদের গর্ব নয়, এ ব্যাপারে কোনওরকম দুর্নীতি যাতে না হয় তাতে আমাদের নজর রয়েছে৷। গতকাল বিধানসভায় কংগ্রেসের প্রতিমা রজক নিজেকে একজন অঙ্গনওয়াড়ি কর্মী বলে দাবি করেন। তাঁদের পারিশ্রমিক বৃদ্ধির আবেদন জানান৷। পাশাপাশি অঙ্গনওয়াড়ি নিয়োগে দলতন্ত্রের অবসানের আবেদন জানান৷।

মন্ত্রী পালটা জানান, পুষ্টির বিচারে এ রাজ্যের শিশুদের উল্লেখযোগ্য উন্নতি হয়েছে৷। সুপ্রিম কোর্টের নির্দেশ অনুসারে সুসংহত শিশু বিকাশ প্রকল্পে আরও বেশি করে খাদ্যসামগ্রী সরবরাহের ব্যবস্হা করা হয়েছে৷। অঙ্গনওয়াড়ি কেন্দ্রে খিচুড়ির বদলে খাবারের সূচি বদল করা হয়েছে৷। ভবঘুরে কল্যাণ প্রকল্প অনুসারে, তাঁদের সমাজে পুনর্বাসিত করার জন্য কারিগরি প্রশিক্ষণ দেওয়া হচ্ছে। প্রতিবন্ধীদের সরকারি সাহায্যের ওপর নির্ভরশীল না থেকে যাতে কিছু রোজগার করতে পারেন, তারও প্রশিক্ষণ দেওয়া হচ্ছে।

সূত্র: কলকাতা24