মেইন ম্যেনু

পাঁচ বছরে ভুট্টার উৎপাদন বেড়েছে ৭৮ শতাংশ

দেশে প্রতিনিয়ত ভুট্টার চাষ বাড়ছে। গত কয়েক বছরে ধানের দাম কম থাকায় ভুট্টা চাষে আগ্রহ বেড়েছে কৃষকের। কম খরচে লাভ বেশি হওয়ায় হাসি ফুটছে কৃষকের মুখেও।

বাংলাদেশ কৃষি সম্প্রসারণ অধিদফতরের পরিসংখ্যান অনুযায়ী, গত পাঁচ বছরে ভুট্টার উৎপাদন ৭৮ শতাংশ বৃদ্ধি পেয়েছে। ২০১০-১১ অর্থবছরে ভুট্টার উৎপাদন ছিল ১৫.৫২ লাখ মেট্রিক টন। ২০১৫-১৬ অর্থবছরে এই উৎপাদন বেড়েছে ২৭.৫৯ লাখ মেট্রিক টন। এই পাঁচ বছরে উৎপাদন বৃদ্ধি পেয়েছে ১২.০৭ লাখ মেট্রিক টন।

কৃষি সম্প্রসারণ অধিদফতরের কৃষিবিদ গোলাম মাওলার সঙ্গে কথা হয় দেশের ভুট্টা চাষ নিয়ে। জাগো নিউজকে তিনি বলেন, দেশে ভুট্টার চাহিদা বৃদ্ধি পাওয়ায় চাষও বাড়ছে। রবি ও খরিপ দু’মৌসুমেই ভুট্টার চাষ হয়ে থাকে। পোলট্রি শিল্পের প্রসারের সঙ্গে সঙ্গে ভুট্টার চাহিদা বেড়েই চলেছে। বর্তমানে দেশে ভুট্টার চাহিদা আনুমানিক ৫০ লাখ টন।

উৎপাদন বাড়লেও চাহিদা মেটানোর মতো ভুট্টা এখনো কৃষক দেশে উৎপাদন করতে পারছেন না বলেও জানান তিনি। তিনি বলেন, ফলে প্রতি বছর প্রায় সাড়ে ২২ লাখ মেট্রিক টন ভুট্টা বিদেশ থেকে আমদানি করে চাহিদা মেটানো হয়ে থাকে।

গেল ৬ অর্থবছরে ভুট্টা উৎপাদনের হার

অর্থবছর পরিমাণ   (হাজার টন)

২০১০-২০১১ – ১৫ লাখ ৫২ হাজার টন

২০১১-২০১২ – ১৯ লাখ ৫৪ হাজার টন

২০১২-২০১৩ – ২১ লাখ ৭৮ হাজার টন

২০১৩-২০১৪ – ২৫ লাখ ১৬ হাজার টন

২০১৪-২০১৫ – ২৩ লাখ ৬১ হাজার টন

২০১৫-২০১৬ – ২৭ লাখ ৫৯ হাজার টন।

*তথ্যসূত্র: কৃষি সম্প্রসারণ অধিদফতর

কৃষিবিদরা আশা করছেন, ২০১৬-২০১৭ অর্থ বছরে ভুট্টার উৎপাদন ৩০ লাখ টন ছাড়িয়ে যাবে।

ভুট্টা মানুষের অতি প্রয়োজনীয় খাদ্য তালিকায় এখনো জায়গা করে নিতে পারেনি। দেশে উৎপাদিত অধিকাংশ ভুট্টা পোল্টি ও গোখাদ্য তৈরিতে ব্যবহৃত হয়ে আসছে। ভুট্টা পুড়িয়ে খই ছাড়া এর ব্যবহার তেমন নেই।

এ বিষয়ে কৃষিবিদ উর্মি আহসান বলেন, ভুট্টা থেকে তৈরি হতে পারে রুটি, খিচুড়ি, ফিরনি ও নাড়সহ নানা পুষ্টিকর খাবার। মজাদার চাইনিজ খাবার তৈরিতে অপরিহার্য যে কর্নফ্লাওয়ার ব্যবহৃত হয় তা ভুট্টারই অবদান। কচি অবস্থায় ভুট্টা সুপেও ব্যবহার করা যায়।

বাংলাদেশ কৃষি গবেষণা ইনস্টিটিউট এ পর্যন্ত বেশ কিছু উন্নত জাত ও হাইব্রিড ভুট্টার জাত উদ্ভাবন করেছে। এগুলো হচ্ছে- শুভ্র, বর্ণালী, মোহর, খই ভুট্টা, বারি ভুট্টা-৫ থেকে বারি ভুট্টা-৭, বারি মিষ্টি ভুট্টা-১, বারি হাইব্রিড ভুট্টা-১, বারি হাইব্রিড ভুট্টা-২, বারি হাইব্রিড ভুট্টা-৩, বারি টপক্রস হাইব্রিড ভুট্টা-১, বারি হাইব্রিড ভুট্টা-৫, বারি হাইব্রিড ভুট্টা-৬, বারি হাইব্রিড ভুট্টা-৭, বারি হাইব্রিড ভুট্টা-৮, বারি হাইব্রিড ভুট্টা-৯, বারি হাইব্রিড ভুট্টা-১০ ও বারি হাইব্রিড ভুট্টা-১১, বারি হাইব্রিড ভুট্টা-১২, বারি হাইব্রিড ভুট্টা-১৩।

এছাড়া বারি বেবি কর্ন-১ নামের একটি ভুট্টাও উদ্ভাবিত হয়েছে; যা শিশুদের খাদ্যের জন্য উপযোগী।